বাংলা ট্র্যাকের প্রথম আইওটি ব্র্যান্ড ‘সিমো’।ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশে ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি)-এর নতুন ব্র্যান্ড ‘সিমো’ চালু করেছে স্বনামধন্য ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বাংলা ট্র্যাক। এটিই কোম্পানিটির প্রথম আইওটি ব্র্যান্ড। এই ব্র্যান্ডের আওতায় বাজারে স্মার্ট সার্ভিলেন্স পোর্টফোলিও পণ্য পাওয়া যাবে। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া বেসিস সফটএক্সপো-২০১৯-এ এই নতুন ব্র্যান্ডের উদ্বোধন ঘোষণা করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জনাব জুনায়েদ আহমেদ পলক। এ সময় গ্রামীণফোন ও বাংলা ট্র্যাক গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে সিমো ব্র্যান্ডের দুটি পণ্য, যথা: ‘সিমো স্মার্ট ডোরবেল’ এবং ‘সিমো স্মার্ট ইনডোর সার্ভিলেন্স ক্যামেরা’ বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। গ্রাহকরা সিমো ও গ্রামীণফোন উভয় প্রতিষ্ঠানের অনলাইনের মাধ্যমে এই পণ্য দুটি কিনতে পারবেন।

সিমোর পণ্য ব্যবহারকারীরা তাদের স্মার্টফোনে সিমো অ্যাপ ইন্সটল করে দরজার বাইরে বা বাসার ভেতরের অবস্থা সম্পর্কে যেকোনো গতির রিয়েলটাইল নোটিফিকেশন পেতে পারেন। এছাড়া গ্রাহকরা গ্রামীণফোনের সার্ভিলেন্স ডাটা প্যাকের সাথে ফ্রি সিমো ক্লাউড বান্ডেল উপভোগ করতে পারবেন, যার মাধ্যমে তারা বাসায় ইন্সটল করা সিমো নাইট ভিশন ক্যামেরার মাধ্যমে ধারণ করা অতীতের ভিডিও দেখতে পারবেন।

বাংলা ট্র্যাক গ্রুপ মূলত বাংলাদেশে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ এবং আইসিটি খাতের পণ্য ও সেবার জন্য খুবই পরিচিত। ইন্টারনেট অব থিংস (আইওটি) পণ্যের উন্নয়নে সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি শীর্ষস্থানীয় মোবাইল ফোন অপারেটর কোম্পানি গ্রামীণফোনের সাথে একটি চুক্তি সই করেছে। এই সহযোগিতা চুক্তির আওতায় মূলত আইওটি পণ্যের উন্নয়নে গুরুত্বারোপ করা হবে, যা গ্রাহকদের দৈনন্দিন জীবনযাত্রার মনোন্নয়ন ও ব্যবসায়ীক দক্ষতা বাড়াতে সহায়তা করবে।

এ বিষয়ে বাংলা ট্র্যাক গ্রুপের গ্রুপ সিইও এম জাহাঙ্গীর আলম, এফসিএমএ বলেন, ‘আইওটি এবং এ বিষয়ে সম্পৃক্ত খাতের বিষয়ে সুচিন্তিত জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা আদান প্রদান করাই আমাদের মূল পরিকল্পনা। এই প্রযুক্তিগত ও বাণিজ্যিক সহযোগিতার মূল লক্ষ্য হলো ভবিষ্যতে বাংলাদেশের কনজ্যুমার ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল খাতে আরো স্মার্ট সল্যুশন ব্যবহারের জন্য নতুন নতুন পণ্য উদ্ভাবন করা।’

আইওটি’র উন্নয়নে বাংলা ট্র্যাকের সাথে চুক্তিটিই গ্রামীণফোনের সর্বশেষ পদক্ষেপ। এই চুক্তির আওতায় বাংলাদেশ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকারকে পরবর্তী ধাপে এগিয়ে নিতে উভয় কোম্পানি তাদের অভিজ্ঞ কর্মী, প্ল্যাটফর্ম এবং অভিজ্ঞতা শেয়ার করবে।

আজকের পত্রিকা/এমআরএস