বাংলাদেশে প্রায় ১ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা করছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের ব্যবসায়ীরা। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৮৪ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ইকোনমিক ফোরাম আয়োজিত সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকভাবে এ বিনিয়োগের ঘোষণা দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। দুবাইয়ের কনরাড হোটেলে আজ রোববার এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনের মূল বক্তা প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। তাঁর পক্ষে নিযুক্ত জনসংযোগ প্রতিষ্ঠান ইমপ্যাক্ট পিআরের এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাংলাদেশের মধ্যে বিনিয়োগের ধারাকে আরও শক্তিশালী করতে দুই দেশের তিন শর বেশি সরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী নেতা, বিনিয়োগকারী এবং উদ্যোক্তা দিনব্যাপী এ সম্মেলনে অংশ নেবেন। সম্মেলনে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা), বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) এবং বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের (বিএইচটিপিএ) কর্মকর্তাদের নিয়ে গঠিত ২০ সদস্যের সরকারি প্রতিনিধিদলের নেতৃত্বে রয়েছেন সালমান এফ রহমান।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সংযুক্ত আরব আমিরাতের অধিকাংশ বিনিয়োগকারী বাংলাদেশি। সেখানে ৫০ হাজারের বেশি বাংলাদেশি ব্যবসায়ী সফলভাবে ব্যবসা পরিচালনা করছেন। এ ছাড়া সংযুক্ত আরব আমিরাতে দেড় লাখের বেশি বাংলাদেশি কর্মরত রয়েছেন।

দুবাই থেকে বিনিয়োগ আসা প্রসঙ্গে বিজ্ঞপ্তিতে সালমান এফ রহমান বলেন, ‘আমরা সব সময় চীন, জাপান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে বড় ধরনের বিনিয়োগ দেখে আসছি। এখন আমরা বিশ্বাস করি, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিনিয়োগকারীরা বিনিয়োগে এগিয়ে আসবেন।’

সংযুক্ত আরব আমিরাতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ ইমরান বলেন, ‘গত বছর বাংলাদেশের অর্থনীতি ৭ দশমিক ৯ শতাংশ হারে উন্নীত হয়েছে এবং আমরা আশা করছি এই বছর নাগাদ তা ৮ দশমিক ৩ শতাংশে পৌঁছাবে।