বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সিরিজের জন্য ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। যেখানে ফেরানো হয়েছে দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মোহাম্মদ হাফিজ ও শোয়েব মালিককে। কিন্তু বাদ দেয়া হয়েছে দুই পেসার ওয়াহাব রিয়াজ ও মোহাম্মদ আমিরকে। এ দুই অভিজ্ঞ পেসারের বদলে তরুণ শাহিন শাহ আফ্রিদি, মোহাম্মদ মুসা, হারিস রউফ, আহমেদ বাটদের ওপরই বেশি ভরসা করেছেন পাকিস্তানের প্রধান কোচ ও নির্বাচক মিসবাহ উল হক। অথচ সামপ্রতিক সময়ে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন আমির ও ওয়াহাবের দুজনই।
বিশেষ করে ২০১৮ সালের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের হয়েছে সবচেয়ে বেশি ২১ উইকেট শিকার করেছেন আমির। এছাড়া চলতি বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগেও আগুন ঝরিয়েছেন ওয়াহাব ও আমির। প্লে অফ ম্যাচে আমিরের রেকর্ডগড়া বোলিংয়েই ফাইনালের টিকিট পেয়েছে খুলনা টাইগার্স। ওয়াহাব এক ম্যাচে মাত্র ৮ রানে নিয়েছিলেন ৫টি উইকেট। তবুও পাকিস্তান দলে নেয়া হয়নি আমির বা ওয়াহাবকে।

দলে সুযোগ না পাওয়ার বিষয়ে ওয়াহাব কিছু না বললেও, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে টিম ম্যানেজম্যান্টকে জবাব দিতে ছাড়েননি আমির। তবে সরাসরি আক্রমণাত্মক কিছু না বলে, সূক্ষ্ম এক খোঁচাই দিয়েছেন এ বাঁহাতি পেসার। তার মতে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়ার কারণেই এবার টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড থেকে বাদ দিয়েছে বোর্ড। পাকিস্তানি সাংবাদিক জয়নব আব্বাস টুইটারে লিখেছিলেন, ‘মাত্রই বিপিএলে ৬ উইকেট নিলেন আমির। তাহলে ঠিক কোন কারণে তাকে স্কোয়াড থেকে বাদ দেয়া হলো ? এর প্রতিউত্তরে ছোট্ট করে আমির লিখেছিলেন, কারণ হলো টেস্ট ক্রিকেট ।

x