ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শনে পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, নদী ভাংঙনরোধে সারাদেশের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা গুলো চিহিৃত করে তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। ভাঙ্গন রোধে আমরা আগাম ব্যবস্থার জন্য জিও ব্যাগ প্রস্তত করেছিলাম সেগুলো এখন ভাঙ্গন রোধে ব্যবহার করছি।

তিনি শনিবার বিকালে মানিকগঞ্জের শিবালয় ও ঘিওর উপজেলার দুটি প্রাইমেরী স্কুল এবং ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শনকালে এ কথা বলেন।

মন্ত্রী আরো বলেন, বন্যা মোকারেলায় পানি সম্পদ মন্ত্রনালয় এবং পানি উন্নয়ন বোর্ড আগাম প্রস্ততি মুলক ব্যবস্থা নিয়েছে। সারা বাংলাদেশের নদী ভাঙ্গনের ঝুকিপুর্ন এলাকাগুলো চিহিৃত করেছি। বন্যার যেখানে পানি বেশী হতে পারে সে এলাকা গুলোকেও চিহিৃত করে কার্যক্রর উদ্দ্যগ আগে থেকেই নেয়া শুরু করেছি। আমাদের পানি সম্পদ মন্ত্রনালয়ের নির্দেশনা আছে একেবারেই স্কুল কলেজ মসজিদ মাদ্রাসা মন্দিরকে সর্বচ্চ গুরুত্ব দিয়ে রক্ষা করার ব্যবস্থা করতে হবে।

এ লক্ষ্যে আমারা মানিকগঞ্জের দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে রক্ষার জিও ব্যাগ ফেলে সর্বচ্চ গুরুত্ব দিয়ে রক্ষা করার ব্যবস্থা করছি।

তিনি বলেন প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার আগাম কার্যক্রর উদ্দগ্যেও কারনে বাংলাদেশের মানুষ নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা পাবেন। তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগেওে সরকারের পাশাপাশি আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা সব সময় দুর্যোগে,বিপদে আপদে মানবতার পাশে দাঁড়ায়।

বর্ষাও পরেও ঝুকি পুর্ন এলাকাগুলোকে স্থায়ীভাবে রক্ষার পরিকল্পনা করে দ্রুততার সাথে কাজ করার কথা বলেন তিনি।

এসময় পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক মাহফুজুর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী অখিল কুমার বিশ্বাস, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো: আবদুল মতিন সরকার, মানিকগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবে মাওলা মেহেদী হাসান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম মহীউদ্দিন,পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম,শিবালয় উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউর রহমান খান জানু, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বাবুল মিয়া, শিবালয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ,এফ,এম ফিরোজ মাহমুদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস উপস্থিত ছিলেন।

শাহজাহান বিশ্বাস/মানিকগঞ্জ