মরদেহ। প্রতীকী ছবি

বরিশালের উজিরপুর উপজেলার মুন্সিরতালুক গ্রাম থেকে ইমরান হোসেন নামের এক কলেজ ছাত্রের (২২) গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ৯ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল ১০টার দিকে বাড়ির সামনের বাগান থেকে ইমরানের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
ইমরান মুন্সিরতালুক গ্রামের কৃষক সরোয়ার হোসেন হাওলাদারের ছেলে এবং উপজেলার ভবানীপুর এলাকার হাজী তাহের উদ্দিন ডিগ্রি কলেজ থেকে এ বছর বিএ (পাসকোর্স) শেষ বর্ষের পরীক্ষা দিয়েছেন।

ইমরানের স্বজনরা জানান, শুক্রবার রাতে ইমরান পার্শ্ববর্তী সেনা সদস্য আবুল কালাম আজাদের বাসায় বিপিএল খেলা দেখতে যায়। খেলার বিরতিতে বাড়িতে আসে রাতের খাবার খেতে। খাবার শেষে ইমরানের মোবাইলে ফোন আসে। ইমরান ফোনে কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়।

রাত বেশি হলে পরিবারের সদস্যরা সেনা সদস্য আজাদের বাড়িতে গিয়ে খোঁজ করেন। সেখান থেকে তাদের জানানো হয় ইমরান বিরতির পর আর খেলা দেখতে আসেনি। রাতভর বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে তাকে পাওয়া যায়নি। এ সময় তার মোবাইলটি ফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়।

শনিবার সকালে ইমরানের বাড়ির সামনের বাগানে পাতা কুড়াতে গিয়ে এক নারী গলা ও এক হাতের আঙ্গুলকাটা মরদেহ দেখে চিৎকার দেয়। এ সময় স্থানীয় লোকজন পুলিশে খবর দেয়।

উজিরপুর থানার ওসি শিশির কুমার পাল জানান, রাত থেকে ইমরান নিখোঁজ ছিল। সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সবকিছু দেখে মনে হচ্ছে এটি পরিকল্পিত হত্যা। মরদেহ উদ্ধার করে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।