‘বন্দুকযুদ্ধে’ ছাত্রলীগ নেতার দুই দেহরক্ষী নিহত

সাতক্ষীরায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ছাত্রলীগ নেতার দুই দেহরক্ষী নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন, মামুনুল ইসলাম দ্বীপ (২৫) ও সাইফুল ইসলাম (৩৮)।

শুক্রবার গভীর রাতে সাতক্ষীরা শহরের কাছে কামালনগরের বাইপাস সড়কের ধার থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত দ্বীপ সাতক্ষীরা শহরের মুনজিতপুরের ময়নুল ইসলামের ছেলে ও সাইফুল ইসলাম কালিগঞ্জের ইজরপুর গ্রামের আবদুস সবুর সরদারের ছেলে। তারা দুজনই ছাত্রলীগকর্মী। নিহতরা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমানের দেহরক্ষী হিসাবে পরিচিত।

জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মো. মিজানুর রহমান জানান, গত ৩১ অক্টোবর কালিগঞ্জের পাওখালিতে গুলি করে দুই এজেন্টের কাছ থেকে বিকাশের ২৬ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দ্বীপ ও সাইফুলের বিরুদ্ধে কালিগঞ্জ থানায় মামলা হয়।

-বৈশাখী

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার রাতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে। শুক্রবার গভীর রাতে সাতক্ষীরা শহরের কাছে কামালনগরের বাইপাস সড়কের ধারে অন্য সহযোগীদের আটক করতে তাদের নিয়ে গেলে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে।

জবাবে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয় দ্বীপ ও সাইফুল।

কালিগঞ্জ থানা পুলিশ ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশ যৌথভাবে দ্বীপ ও সাইফুলকে শহরের বাইপাস সড়ক ধারে কামালনগরে সন্ত্রাসীদের ডেরায় নিয়ে আসে। এ সময় বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

এ সময় দুটি দেশি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি, একটি মোটরসাইকেল ও দুটি চাকু উদ্ধার করা হয় বলে জানান ওই পুলিশ পরিদর্শক।