বগলে বডিস্প্রে ব্যবহারের পর ঘামের গন্ধে তা অল্প সময়ের মধ্যেই ফিকে হয়ে যায়। ছবি : সংগৃহীত

দৈনিক গরমের মাত্রা বেড়েই চলেছে। তীব্র গরমে বাড়ছে অস্বস্তি। ঘর্মাক্ত ও ক্লান্ত শরীরে না চাইতেই বহন করতে হচ্ছে দুর্গন্ধ। বাসে-ট্রেনে যাতায়াতের সময় ঘামের দুর্গন্ধ নিজের কাছে যেমন অস্বস্তিকর লাগে, ঠিক অন্যদের কাছেও তা বিরক্তের কারণ। এমন অবস্থায় এই দুর্গন্ধকে নিরুপায় করে দিতে ব্যবহার করা হয় নানা রকম গন্ধ বিশিষ্ট সুগন্ধি বা বডি স্প্রে। সুগন্ধি আমাদের দৈনন্দিন জীবনে খুবই প্রয়োজনীয় একটি উপকরণ। কিন্তু সব ধরনের বডি স্প্রের সুগন্ধ দীর্ঘক্ষণ স্থায়ী হয় না। অন্যদিকে যাদের অত্যাধিক ঘাম হয়, তাদের শরীরে কোনও বডি স্প্রের সুগন্ধই দীর্ঘস্থায়ী হয় না।

ফলে পছন্দমতো বডি স্প্রে ব্যবহার করে বডি স্প্রের সুগন্ধ দীর্ঘস্থায়ী করতে চাইলে কিছু টিপস মেনে চলতে পারেন। এই টিপস জানা থাকলে, আপনার শরীরে দীর্ঘ সময় ধরে সুগন্ধ থাকবে। চলুন জেনে নিই, টিপসগুলো সম্পর্কে।

কম ঘামে এমন স্থানে সুগন্ধি ব্যবহার

বডি স্প্রের গন্ধ দীর্ঘস্থায়ী করতে শরীরের বিভিন্ন অংশে ব্যবহার করতে পারেন। সাধারণত, বগলে বডি স্প্রে ব্যবহারের পর ঘামের গন্ধে তা অল্প সময়ের মধ্যেই ফিকে হয়ে যায়। এ জন্য শরীরের যে অংশগুলি ঘামে না বা অপেক্ষাকৃত কম ঘামে যেমন, কানের পেছনে, গলায় ইত্যাদি জায়গায় বডিস্প্রে ব্যবহার করলে তার গন্ধ দীর্ঘক্ষণ স্থায়ী হবে।

স্প্রে ব্যবহারের পর জামা পরুন

বডি স্প্রের সুগন্ধি শরীরে স্প্রে করার সঙ্গে সঙ্গেই গায়ে জামা পরে ফেলবেন না। বডি স্প্রের সুগন্ধি সারা গায়ে ছড়িয়ে পড়া পর্যন্ত কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন, তারপর জামা পরুন। এর ফলে ডিওডোরেন্টের গন্ধ দীর্ঘক্ষণ স্থায়ী হবে।

কাপড়ে ব্যবহার করবেন না

অনেকেই বডি স্প্রে বা ডিওডোরেন্ট কাপড়ে ব্যবহার করেন এবং স্প্রে করার পরে জায়গাটি ভালো করে ঘষে নেন। এই কাজটি একেবারেই করবেন না। এতে সুগন্ধি আরও তাড়াতাড়ি ফিকে হয়ে যায়।

একই গন্ধের ভিন্ন প্রসাধনী ব্যবহার

আপনি যে ব্র্যান্ডের বডি স্প্রে ব্যবহার করছেন, ওই একই ব্র্যান্ডের এবং একই সুগন্ধযুক্ত অন্য প্রসাধনীও ব্যবহার করুন। এতে বডি স্প্রে বা ডিওডোরেন্টের গন্ধ দিনের শেষে ফিকে হয়ে গেলেও অন্য প্রসাধনীর সুগন্ধি আপনাকে সতেজ রাখবে।

কিছুক্ষণ পর পর ব্যবহার করা

আপনার বডি স্প্রেটি যদি একেবারেই অল্প সময় স্থায়ী হয়, তাহলে সেটিকে সব সময় আপনার সঙ্গেই রাখুন এবং কিছুক্ষণ পর পর ব্যবহার করুন।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/আ.স্ব/জেবি