বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন এন্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থান নির্ধারণ

বৃহস্পতিবার আগস্ট ২২, ২০১৯
0
52

এয়ারক্রাফ্ট নির্মান, মেরামত, স্যাটেলাইট নির্মান, উৎক্ষেপন, মহাকাশ গবেষনা প্রভৃতি প্রযুক্তিতে বিশ্বের বেশ কিছু উন্নত দেশ অনেক এগিয়ে গেলেও কিছু সীমবদ্ধতার কারণে আমাদের দেশে ইতিপুর্বে বড় কোন উদ্যোগ নেয়া সম্ভব হয়নি। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদুর প্রসারি পরিকল্পনা এবং সাহসী পদক্ষেপে দেশে এই প্রথম একটি অ্যাভিয়েশন এন্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্টিত হতে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (২২ আগষ্ট) বিকেলে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ লালমনিরহাট বিমান বন্দর এলাকায় অ্যাভিয়েশন ও অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয় নির্মাণের জন্য স্থান পরিদর্শন করেন।

এ সময় সাংবাদিকদের তিনি বলেন, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারী মাসের ২৮ তারিখে “বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন এন্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়” আইনটি বিল আকারে সংসদে পাশ করা হয়। পরবর্তীতে ওই বছরের মে মাসের ৬ তারিখে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, প্রো-ভিসি, রেজিষ্ট্রার, ট্রেজারারসহ অন্যান্য গুরুত্বপুর্ন পদে নিয়োগের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানের দাপ্তরিক কার্যক্রম শুরু হয়।

তিনি বলেন, আগামী ২০২০ সালের জানুয়ারী মাসেই বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ে পাঠদানের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হবে বলে আমরা করছি। প্রাথমিক ভাবে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ৭টি ফ্যাকলটি, ৩৭টি ডিপার্টমেন্ট এবং ৪টি ইনস্টিটিউট রাখার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল মাসিউজ্জামান সেরনিয়াবাদ, অ্যাভিয়েশন ও অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য নিয়োগ প্রাপ্ত ভিসি এয়ার ভাইস মার্শাল এএইচএম ফজলুল হক, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও লালমনিরহাট-৩ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ কাদের (জিএম কাদের), লালমনিরহাট জেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যা মতিয়ার রহমানসহ আ’লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী ও জেলার বিভিন্ন পেশা শ্রেণীর লোকজন।

জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না/লালমনিরহাট