লালমনিরহাট আদালত পাড়ায় অ্যাডভোকেটের মোবাইল ফোন চুরির দায়ে লালমনিরহাট জেলা আইনজীবী সমিতির শিক্ষানবীশ সদস্যপদ থেকে বাতিল হলেন নবীন আইনজীবী রশিদুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারী) সকালে জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট আকমল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

পরে জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক পত্র পাঠিয়ে সমিতি কর্তৃক প্রদান করা শিক্ষানবীশ আইনজীবীর পরিচয় পত্র সমিতির কার্যালয়ে ফেরত দেয়ার নির্দেশ দেন।

চুরির দায়ে অভিযুক্ত শিক্ষানবীশ আইনজীবী রশিদুল ইসলাম লালমনিরহাট শহরের বসুন্ধরা এলাকার রহমতুল্লার ছেলে। তার জেলা আইনজীবী সমিতির শিক্ষানবীশ পরিচিতি নং ছিল -১৮৪।

জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যালয় সুত্রে জানা গেছে, সাম্প্রতিক সময় জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট ফয়সাল বিন মোশারফ (সাব্বির) এর মোবাইল ফোন চুরির দায়ে শিক্ষানবীশ রশিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে তিনি সমিতির কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগটি আমলে নিয়ে জেলা আইনজীবী সমিতি তদন্ত করে সত্যতা প্রমান পান।

শিক্ষানবীশ আইনজীবী হয়ে চুরির সাথে জড়িত থাকার অপরাধে গত ১১ জানুয়ারী আইনজীবী সমিতির সভায় সর্বসম্মতিক্রমে শিক্ষানবীশ রশিদুল ইসলামকে সমিতি থেকে বাতিল করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন।

যার প্রেক্ষি‌তে গত মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারী) জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট আকমল হোসেন আহমেদ চুরির দায়ে অভিযুক্ত শিক্ষানবীশ আইনজীবী রশিদুল ইসলামের সদস্যপদ বাতিল করে পত্র পাঠান। আগামীতে বার কাউন্সিল কর্তৃক আইনজীবী হিসেবে সনদ পেলেও রশিদুল ইসলামকে সমিতির সদস্যভুক্ত না করার ঘোষনাও দেয়া হয়।

ফলে শিক্ষানবীশ আইনজীবী হলেও জেলা আইনজীবী সমিতির আজীবনের সদস্যপদ হারালেন চুরির দায়ে অভিযুক্ত রশিদুল ইসলাম।

-জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না, লালমনিরহাট