সেমি ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংল্যান্ডের দুর্দান্ত বোলিং প্রদর্শনী। ছবি : সংগৃহীত

বিশ্বকাপের ফাইনালে যেতে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ২২৪ রান। ১১ জুলাই বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে সেমি-ফাইনাল ম্যাচে প্রথমে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ।

ব্যাটিং এর শুরুতেই বড় ধরণের হোচট খায় বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। স্কোরবোর্ডে ১৪ রান তুলতেই পতন হয় ৩টি উইকেটের। অসাধারণ ফর্মে থাকা ডেভিড ওয়ার্নার এবং অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ইংল্যান্ডের বোলিং আক্রমণের কাছে পরাজয় স্বীকার করে ড্রেসিং রুমে ফিরে যান। জোফরা আর্চারের প্রথম বলে এলবিডব্লিউ হোন ফিঞ্চ। শূন্য রানেই তিনি মাঠ ছাড়েন। ডেভিড ওয়ার্নার সংগ্রহ করেন মাত্র ৯ রান।

দলের বিপদের মুহূর্তে এসে অনেকটা সময় হাল ধরেন স্মিথ এবং অ্যালেক্স ক্যারে। স্মিথের ৮৫ রানের ইনিংস এবং অ্যালেক্স ক্যারের ৪৬ রান ক্যাঙ্গারুদের ড্রেসিং রুমে কিছুটা হলেও স্বস্তি এনে দেয়। তবে সে স্বস্তি শেষপর্যন্ত থাকেনি। দলীয় ২১৭ রানের মাথায় স্মিথের উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। এরপর বেশিক্ষণ ক্রিজে দাঁড়াতে পারেনি অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানরা।

সবশেষে, ৪৯ ওভার ব্যাটিং করে ২২৩ রানের সংগ্রহে সবগুলো উইকেট হারায় শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়া।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/