ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবর বেড়িয়েছে, প্রেম করছেন বাংলাদেশ ও কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। আর আগামী বছর বসছেন বিয়ের পিঁড়িতে। তবে এমন খবরের সত্যতা সরাসরি উড়িয়ে দিলেন জয়া নিজেই।

কলকাতায় ‘রবিবার’ ছবির প্রচারণায় ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার সঙ্গে আড্ডায় মেতেছিলেন প্রসেনজিৎ ও জয়া। সাক্ষাৎকারে কলকাতার এক তারকার বরাত দিয়ে জানতে চাওয়া হয়, জয়া নাকি বাংলাদেশের একজনের সঙ্গে প্রেম করছেন এবং আগামী বছর বিয়ে করবেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে জয়া বলেন, ‘ওহ্! আমার সম্পর্কে এত কিছু কে বললেন?’ এরপর প্রশ্ন রাখা হয়, তাহলে কি সংবাদটি গুজব? জয়া নাকি বলেন, ‘না। আমি প্রেম করছি। যাঁর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছি, তিনি বাংলাদেশের। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির কেউ নন। কিন্তু বিয়ের দিনক্ষণ এখনো ঠিক হয়নি।’

তবে জয়া দেশের একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় জানিয়েছেন, ‘আমার বিশেষ বন্ধু আছে। কিন্তু সেটা কখনোই প্রেমঘটিত কিছু না। অনেক দিন ধরে টাইমস অব ইন্ডিয়া থেকে আমাকে প্রশ্ন করেছিল প্রেম ও ভালোবাসার সম্পর্ক নিয়ে। আমি কিন্তু তাঁদের বলেছি, আমার স্পেশাল বন্ধু আছে। খুবই ভালো বন্ধু আছে। কিন্তু এটা কখনোই প্রেম কিংবা ভালোবাসা নয়। আর বিয়ের তো প্রশ্নই ওঠে না।’

জয়া বলেন, ‘আমি এমনভাবে কাজ করি, দুই দেশ মিলিয়ে—আমার হাতে এমন অখণ্ড সময় নেই যে কারও সঙ্গে প্রেম করব। আমার মতো এত ব্যস্ত একজন মানুষের সঙ্গে কে–ইবা প্রেম করবে বলেন! প্রেম করতে গেলে সময় দিতে হয়, আমি তো সেই সময় দিতে পারব না। আমার সেই সময় কোথায়। আমার সব প্রেম আপাতত কাজের সঙ্গে।’

তবে কখনো যদি প্রেমের সম্পর্কে জড়ান কিংবা বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন, তা অবশ্যই সবাইকে জানাবেন বললেন জয়া। তাঁর মতে, এটা নিয়ে লুকোচুরি করার কিছুই নেই। জয়া বলেন, ‘প্রেম করি, বিয়ে করি সেটা কেন বলব না। গোপন করার তো কিছুই দেখছি না। আমি যথেষ্ট ম্যাচিউরড একজন মানুষ। জীবনের এমন সিদ্ধান্ত নিলে তা অবশ্যই সবাইকে জানাব।’

জয়ার মতে, টাইমস অব ইন্ডিয়া সাক্ষাৎকার নিতে গেলে প্রায়ই তাঁর প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে জিজ্ঞেস করে। বলেন, ‘দুই দেশে যেহেতু কাজ করছি, তাই ওখানেও ভক্তদের মধ্যে আমাকে নিয়ে আগ্রহ আছে। সে কারণে ব্যক্তিগত বিষয়ে তারা জানতে চায়। সে কারণে এভাবে উদ্ধৃতি দিয়ে প্রেম ও বিয়ের খবরটি প্রকাশ করেছে, যা মোটেও এমনটা নয়।’

কিন্তু আগামী বছর বিয়ের কথা যে বলা হলো? এমন প্রশ্নে জয়া বলেন, প্রেমই যেখানে নেই, সেখানে বিয়ের তো প্রশ্নই আসে না।