আসাদুজ্জামান স্বপ্ন
সিনিয়র রিপোর্টার

প্রেম নিবেদন নিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ । ছবি : সংগৃহীত

প্রেম নিবেদন নিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ আহত হয়েছেন ১৪ জন।  ১৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার দুপুরে ক্যাম্পাসের শহীদ মিনার ও ভাস্কর্য চত্বরে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের মাদারীপুর ও ময়মনসিংহ গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়।

দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ৪ রাউন্ড টিয়ার শেল ব্যবহার করে। কোতয়ালী জোনের এসি বদরুল হাসান বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য ৪ রাউন্ড টিয়ার শেল ব্যবহার করা হয়েছে। ক্যাম্পাসের ভেতরে এক গ্রুপ অবস্থান করছে আর বাহিরে আরেক গ্রুপ রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টরেরসহ সাথে আলোচনা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রেম নিবেদন ও এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্তের জের ধরে মাদারীপুর গ্রুপের ৩-৪ জন কর্মীকে মারধর করেন ময়মনসিংহ গ্রুপের কর্মীরা। দুপুরে মাদারীপুর গ্রুপের সহসভাপতি মিজানুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম রেজা এবং ময়মনসিংহ গ্রুপের সাংগঠনিক সম্পাদক জহির রায়হান আগুন ও বহিষ্কৃত উপ-প্রচার সম্পাদক আনিসুর রহমান শিশিরের কর্মীদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে উভয়পক্ষ মিছিলের প্রস্তুতি নিলে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সংঘর্ষ ও দেশীয় অস্ত্রসহ ধাওয়া-পাল্টা শুরু হয়। পরে দুপুরে ক্যাম্পাসের শহীদ মিনার ও ভাস্কর্য চত্বরে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের মাদারীপুর ও ময়মনসিংহ গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়।

প্রেম নিবেদন নিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ । ছবি : সংগৃহীত

জবি ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক সুরঞ্জন ঘোষ ও প্রক্টরিয়াল বডির হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানা যায়।

সংঘর্ষে গুরুতর আহত ছাত্রলীগের এক কর্মীকে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, মাদারীপুর গ্রুপ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও ময়মনসিংহ গ্রুপের নেতাকর্মীরা সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইনের অনুসারী। জবি ছাত্রলীগের সভাপতি শরিফুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, ‘ছাত্রলীগ ও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করায় বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ঢাকায় ফিরে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আজকের পত্রিকা/জেবি