দেখা করার পর কী কী ঘটতে পারে, সে বিষয়ে আপনার কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। ছবি: সংগৃহীত

প্রেমিকার পিতামাতার সঙ্গে দেখা করা, একজন প্রেমিকের জন্য যথেষ্ট মানসিক চাপের বিষয়। তাদের সাথে কীভাবে কথা বলতে হবে, কী ধরনের আচার-আচরণ তারা পছন্দ করবেন- এসব নিয়ে ভাবতে ভাবতে রাতের ঘুম হারাম হয়ে যায়। দেখা করার পর কী কী ঘটতে পারে, সে বিষয়েও আগে থেকে কোনো নিয়ন্ত্রণ থাকে না কারো। তবে দেখা করার সময় আপনি নিশ্চয়ই কিছু জিনিস সঠিকভাবে করতে পারেন, যার ফলে আপনাকে তাদের প্রতি ভালো লাগতে পারে। নিচে এমন কিছু টিপস আছে, যা প্রেমিকার বাবা-মায়ের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার সময় আপনার সাহায্য করবে-

প্রেমিকার বাবা-মায়ের প্রেমের গল্পটি জেনে নিন

তাদের প্রেমের গল্প সম্পর্কে একটু জানেন তবে এটি আপনাকে যথেষ্ট সাহায্য করবে। ছবি: সংগৃহীত

প্রেমিকার বাবা-মায়ের পছন্দ ও অপছন্দগুলির উপর গবেষণা করে ফেলুন। পাশাপাশি আপনি যদি তাদের প্রেমের গল্প সম্পর্কে আগে থেকেই জেনে থাকেন, তবে এটা আপনাকে তাদের কাছাকাছি আসার ক্ষেত্রে যথেষ্ট সাহায্য করবে। তাদের কী এরেঞ্জ ম্যারেজ নাকি লাভ ম্যারেজ, কোথায় প্রথম দেখা হয়েছিলো, ইত্যাদি বিষয়ে জানা থাকলে তাদেরকে কনভেন্স করা সহজ হয়ে যাবে।

পোশাক

সবচেয়ে ভালো হয় সেমি-ফরমাল পোশাক পরা। ছবি: সংগৃহীত

কোনো ব্যক্তির সাথে দেখা হলে, প্রথমেই তার যে বিষয়টি লক্ষ্য করা হয়, তা হলো- পোশাক। প্রেমিকার বাবা-মায়ের সঙ্গে প্রথম দেখায় অতিরিক্ত ক্যাজুয়াল কিংবা অতিরিক্ত ফরমাল পোশাক পরা ঠিক হবে না। সবচেয়ে ভালো হয় সেমি-ফরমাল পোশাক পরা। প্রেমিকার কাছ থেকে তার মায়ের পছন্দের রঙ জেনে নিন। সম্ভব হলে সেই রঙের পোশাক পড়ুন। তাহলে তার মায়ের পছন্দ হবে।

উপহার নিন

অনেক দামী কিংবা ব্যক্তিগত কোনো কিছু উপহার দেওয়া যাবে না। ছবি: সংগৃহীত

আপনি যদি তাদের বাসায় গিয়ে দেখা করতে চান, তাহলে তাদের জন্য উপহার কিনুন। তবে উপহার কেনার ব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। অনেক দামী কিংবা ব্যক্তিগত কোনো কিছু উপহার দেওয়া যাবে না। উপহার হিসেবে চকলেট, ফুল কিংবা বই খুবই ভালো হবে।

প্রথম দেখাতেই ‘বাবা-মা’ বলে সম্বোধন করবেন না

তাদের আন্টি-আঙ্কেল বলে ডাকতে পারেন। ছবি: সংগৃহীত

বেশিরভাগ পুরুষরাই তাদের প্রেমিকার বাবা-মাকে প্রথম দেখাতেই বাবা-মা বলে ডাকা শুরু করেন। এটা খুবই ভুল পদক্ষেপ। প্রথমেই এ ধরনের সম্বোধন কেউই স্বাভাবিকভাবে নেয় না। বরং তাদের আন্টি-আঙ্কেল বলে ডাকতে পারেন।

মনযোগী হোন

তাদের সাথে কথা বলার সময় যথেষ্ট মনযোগী হতে হবে। ছবি: সংগৃহীত

তাদের সাথে কথা বলার সময় যথেষ্ট মনযোগী হতে হবে। অভিভাবকরা কথা বলার সময় অমনোযোগী হওয়া পছন্দ করেন না।

মোবাইল বন্ধ রাখুন

আগে থেকে মোবাইল ফোন বন্ধ করে রাখাই ভালো। ছবি: সংগৃহীত

এই উপদেশ পারতপক্ষে অযৌক্তিক মনে হতে পারে। কিন্তু লক্ষ্য করে দেখবেন তাদের সাথে সময় কাটানোর সময় যখন আপনার মোবাইল ফোন বেজে উঠবে, তখন আপনারও বিরক্ত লাগবে, তাদেরও লাগতে পারে। এ ধরনের পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য আগে থেকেই মোবাইল ফোন বন্ধ করে রাখুন কিংবা ফ্লাইট মুডে রাখাই ভালো।

আজকের পত্রিকা/রিয়া/সিফাত