সিফাত বিনতে ওয়াহিদ
সিনিয়র সাব-এডিটর

১৯৯০ সালে ক্যামেরুন সফরে তোলা প্রিন্স চার্লস-প্রিন্সেস ডায়ানা দম্পতির একটি আইকনিক মুহূর্ত। ছবি: আরডি.কম

কোটি মানুষের হৃদয় জয় করেছিলেন যে বৃটিশ রাজবধূ, তিনিই লেডি ডায়ানা ফ্রান্সেস স্পেন্সার। বৃটিশ রাজ পরিবারের যুবরাজ চার্লসকে বিয়ের পর যার নামকরণ করা হয় ডায়ানা ফ্রান্সেস মাউন্টব্যাটেন-উইন্ডসর। শুধুমাত্র সৌন্দর্যের কারণে নয়, মানবিক গুণাবলীর কারণেও বিশ্ববাসীর কাছে জনপ্রিয় ছিলেন তিনি।

১৯৮১ সালে প্রিন্স অব ওয়েলস, চার্লসের সঙ্গে বাগদানের পর থেকে ১৯৯৭ সালে গাড়ি দুর্ঘটনায় মৃত্যুর আগ পর্যন্ত প্রিন্সেস ডায়ানা ছিলেন পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় নারীদের মধ্যে অন্যতম। ফ্যাশন আইকন এবং নারী সৌন্দর্যের অনন্য প্রতীক হিসেবে এখনো তাকে স্মরণ করা হয় গভীর ভালোবাসায়। কোটি মানুষের হৃদয়ে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় আজও তিনি বিরাজমান রানির আসনেই। দেখে নেওয়া যাক, ওয়েলসের প্রিন্সেসের হৃদয়স্পর্শী কিছু বিরল ছবি-

দুই ছেলে প্রিন্স উইলিয়াম ও প্রিন্স হ্যারির সঙ্গে প্রিন্সেস ডায়ানা। ছবি: আরডি.কম

১৯৯৩ সালে রাজ পরিবার থর্প পার্কে একটি ভ্রমণে যান। ডায়ানা সেখানে তার ছেলেদের সঙ্গে এক স্মরণীয় সময় কাটিয়েছিলেন। মায়ের মৃত্যুর ২০ বছর পর এক সাক্ষাৎকারে প্রিন্স হ্যারি ওই ভ্রমণ সম্পর্কে স্মৃতিচারণ করেন।

বাস্তব জীবনের সিন্ড্যারেলা তার যুবরাজ চার্লসের সঙ্গে অন্তরঙ্গ এক মুহূর্তে। ছবি: আরডি.কম

১৯৮৮ সালে বৃটিশ রাজ পরিবার অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়েছিল । সেখানে সান্ধ্যকালীন এক পার্টিতে গোলাপী-সাদা পোশাকের ডায়ানার কাছ থেকে নজর ফেরাতে পারছিলেন না প্রিন্স অব ওয়েলস, চার্লস।

ছেলেদের সঙ্গে সাইকিলিংইয়ে ব্যস্ত মা-বাবা। ছবি: আরডি.কম

স্কিলি দ্বীপে ছুটির দিনগুলিতে একটি পারিবারিক সাইকিলিং অবশ্যম্ভাবী। যদিও রাজ পরিবারে এ ধরনের পারিবারিক অনুষ্ঠান বিরল ছিলো, কিন্তু সুযোগ পেলেই রাজকুমারী ডায়ানা তার ছেলেদের সঙ্গে এমন সময় কাটাতে ভালোবাসতেন।

যে প্রথম দৌড়ে প্রথম হবে, সে-ই রাজকুমারী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে যাবে। ছবি: আরডি.কম

রাজকুমারী ডায়ানাই রাজ পরিবারে একমাত্র ফ্যাশন আইকন ছিলেন, যিনি দৌড় প্রতিযোগীতার সময় কানের দুল, কার্ডিনগন এবং স্কার্ট পরতে পেরেছিলেন। মাঠের এই দৌড়ে ছোট চুলও সহায়ক হিসেবেই কাজ করেছে।

ছোট্ট রাজকুমারের সঙ্গে পিকনিকে বাবা-মা। ছবি: আরডি.কম

রাজকুমারী ডায়ানার মৃত্যুর ২০তম বার্ষিকী উপলক্ষে রাজ পরিবার তাদের ব্যক্তিগত অ্যালবাম থেকে তিনটি নতুন ছবি প্রকাশ করেছে। এরমধ্যেই একটি ছবিতে এই পিকনিকের ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায়।

বৃটেনের বাচ্চা পুলিশ বাহিনীর সঙ্গে তাদের মা ডায়ানা। ছবি: আরডি.কম

ছোট্ট প্রিন্স উইলিয়াম এবং হ্যারি একদিনের জন্য পুলিশের পোশাকে সেজেছিলেন। মা ডায়ানা পেছনে তত্ত্বাবধানে রয়েছেন যেন বাচ্চা পুলিশ দল বাইক থেকে পড়ে না যান!

অভিনেতা জন ট্রাভোল্টারের সঙ্গে নৃত্যরত ডায়ানা। ছবি: আরডি.কম

১৯৯৫ সালে হোয়াইট হাউজ সফরে গিয়েছিলেন প্রিন্সেস ডায়ানা। যদিও ওইখানে সে অভিনেতা জন ট্রাভোল্টারের সঙ্গে নাচছিলেন, কিন্তু বলরুমের সমস্ত চোখ যেন কেবল ডায়ানাকেই প্রত্যক্ষ করছিলো।

বোনদের সঙ্গে হাস্যরত রাজকুমারী ডায়ানা। ছবি: আরডি.কম

১৯৯৫ সালে রয়্যাল অপেরা হাউজ থেকে ফেরার সময় বিরল এক মুহূর্তে ক্যামেরাবন্দি হন প্রিন্সেস ডায়ানা। তার দুই বোন লেডি সারাহ ম্যাককোডকোডেল ও লেডি জেন ফোলোসও ওই সময় তার সঙ্গে মজাদার কোনো কৌতুকে মগ্ন ছিলেন।

মা-ছেলের নিঃশর্ত প্রেম। ছবি: আরডি.কম

প্রিন্সেস উইলিয়াম এবং হ্যারির জন্য প্রিন্সেস অব ওয়েলসের নিঃশর্ত প্রেমের প্রতি পৃথিবীর কেউই কোনোদিন প্রশ্ন ওঠাতে পারবে না, এই ছবিটিও এর একটি প্রমাণ। তারা কয়েক দিন বা কয়েক মাসের জন্য পৃথক থাকার পর দেখা করেছিলো, এই ছবিই বলে দিচ্ছে একে অপরকে দেখে কতটা আনন্দিত মা ও ছেলে।

বিভিন্ন সংস্কৃতিকে যেভাবে আলিঙ্গন করেছিলেন ডায়ানা। ছবি: আরডি.কম

পাকিস্তানের একটি ছোট্ট গ্রাম নূরপুর শাহান পরিদর্শনকালে প্রিন্সেস ডায়ানা হালকা গোলাপী রঙের একটি ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরেছিলেন, সঙ্গে ছিলো নীল স্কার্ট। প্রতিটা সংস্কৃতিকেই তিনি আপন করে নিতে জানতেন।

উল্লেখ্য, ডায়ানার জীবদ্দশায় তাকে বলা হতো বিশ্বের সর্বাধিক আলোকচিত্রিত নারী। অবশ্য সমালোচকদের মতে এই খ্যাতি এবং খ্যাতির জন্য প্রচেষ্টাই ডায়ানার জীবনে কাল হয়ে দাঁড়িয়েছিলো। ১৯৯৭ সালে ফ্রান্সের প্যারিস শহরে ডায়ানা ও তার তৎকালীন প্রেমিক দোদি ফায়েদ এক গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত হন।