লাঞ্চের আগে মাহমুদুল্লাহ উইকেট। ছবি:সংগৃহীত

চতুরমুখী স্পিন আক্রমণে আফগানিস্তানের ওপর বেশ চাপই বজায় রেখেছে বাংলাদেশ। এই পথে অবশ্য আফগানিস্তান তাদের উইকেট উপহার দিয়ে তাদের সহায়তা করেছে। টেস্টে ১০০তম উইকেট পাওয়ার জন্য তাইজুলের বিষয়টিই প্রথম সেশনের প্রধান আকর্ষণ। এরপর দ্বিতীয় উইকেটও আসে তাইজুলের হাত ধরেই। দ্বিতীয় উইকেটে রানের গতি বাড়িয়েছিলেন তিনে নামা রহমত শাহ। আরেক ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান খেলে যাচ্ছিলেন টেস্ট মেজাজে। দুজনের জুটিতে দলীয় পঞ্চাশের দিকে ছুটছিল আফগানরা।

মধ্যাহ্ন বিরতির আগ দিয়ে ইনিংসের ৩৩তম ওভারে ডেকে নেয়া হয় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে। যিনি এক ওভার শেষ করার আগেই ডাকা হয় লাঞ্চ। ঘুরিয়ে ফিরিয়ে দুই বাঁহাতি অর্থোডক্স ও তিন ডানহাতি অফস্পিনেই শেষ হয়েছে প্রথম সেশন। যেখানে নৈতিক জয়টা বলা চলে বাংলাদেশেরই হয়েছে। কেননা মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত ৩২.৪ ওভার খেলে মাত্র ৭৭ রান তুলতেই ৩ টপঅর্ডারের ব্যাটসম্যানকে হারিয়েছে আফগানরা।

আজকের পত্রিকা/এসএমএস