সাজিদ জাভিদ। ছবি : সংগৃহীত

ব্রেক্সিট ইস্যুকে কেন্দ্র করে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। ২৪ মে শুক্রবার সকালে কনজারভেটিভ পার্টির ব্যাকব্যাঞ্চ ১২২ কমিটির চেয়ারম্যানের সঙ্গে স্বাক্ষাতের পর ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের সামনে এক সংক্ষিপ্ত ভাষণে পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি। ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ৭ জুন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব ছাড়বেন থেরেসা মে।

তার অবর্তমানে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন দেশটির বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ। তিনি যদি তেরেসা মে’র স্থলাভিষিক্ত হন, তবে তিনিই হবেন দেশটির প্রথম কোনো মুসলমান প্রধানমন্ত্রী।

বৃটেনের সংবাদ মাধ্যম গার্ডিয়ানসহ আন্তর্জাতিক নানা গণমাধ্যমে প্রকাশিত জরিপে সম্ভাব্য প্রধানমন্ত্রীর তালিকায় উঠে এসেছে ৪৮ বছর বয়সী পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত সাজিদ জাভিদের নাম।

সাজিদ জাভিদ ছাড়াও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী হওয়ার প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিশেষভাবে এগিয়ে রয়েছেন বরিস জনসন, জেরেমি হান্ট, ডোমেনিকান রব, মাইকেল গভ ও আন্দ্রে লিডসাম।

ব্রিটেনে অবৈধ অভিবাসী বিতাড়ন সম্পর্কিত সরকারি নীতি নিয়ে কেলেঙ্কারির মুখে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাম্বার রাড পদত্যাগ করলে পরদিনই তার জায়গায় নিয়োগ পান সাজিদ জাভিদ। তারপর ক্যারিবীয় অভিবাসী শিশুদের ওপর একটি কেলেঙ্কারি ভালোভাবে সামাল দিয়ে ৪৯ বছর বয়সী এ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সবার প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

অর্থনৈতিকভাবে উদারপন্থী সাজিদ জাভিদ ২০১৬ সালে ইউরোপীয় ইউনিয়নে থাকার পক্ষেই ভোট দিয়েছিলেন। ২০১৮ সালের এপ্রিলে ব্রিটেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পান সাবেক এ বিনিয়োগ ব্যাংকার।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/আ.স্ব