প্রতিদিন অন্তত ৬-৮ গ্লাস অর্থাৎ ২ লিটার পানি পান করতে হবে। ছবি: সংগৃহীত

বিশুদ্ধ পানি শরীর সুস্থ রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে, এ তথ্য সবারই জানা কথা। তবে পানি খাওয়া নিয়ে সচরাচর আমাদের অনেকের মধ্যেই অনীহা লক্ষ্য করা যায়। আর যদি প্রশ্ন ওঠে পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করা নিয়ে, তাহলে দেখা যাবে খুব কম মানুষই শরীরের দৈনিক প্রয়োজনীয় পানির চাহিদা মিটিয়ে থাকেন। অথচ পানি খাওয়ার উপকারিতা অনেক। পানি যেমন মেটাবলিজম বাড়াতে সাহায্য করে, তেমনই শরীরের থেকে টক্সিন বের করে দেয়। ফলে ত্বকে ফিরে আসে উজ্জ্বলতা ও জেল্লা। চলুন জেনে নিই পর্যাপ্ত পানি খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে।

ওজন কমায়

ওজনের সমস্যায় আমরা প্রায় সবাই খুব চিন্তিত থাকি। বাড়তি ওজনের সঙ্গে লড়াইয়ে কত কিছুই না করে থাকি। কিন্তু আপনি যতই খাওয়া-দাওয়া নিয়ন্ত্রণ কিংবা নিয়মিত ব্যায়াম করেন না কেন, পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি না খেলে সবই বৃথা! প্রতিদিন অন্তত ৬-৮ গ্লাস অর্থাৎ ২ লিটার পানি খেতেই হবে। যারা বেশি ওয়ার্ক আউট করেন, তাদের খুব গরমের সময় পানি খাওয়ার পরিমাণ বাড়াতে হবে। তা না করলে শরীর ডিহাইড্রেটেড হয়ে যাবে।

হজমের সমস্যায়

জানেন কি পানি মুখের লালা হজমে সাহায্য করে? শরীরে পানি কমে গেলে লালা তৈরি হয় না। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হয় হজমের প্রক্রিয়া।

হৃদযন্ত্র সুস্থ রাখে

পানি কম খেলে রক্ত জমাট বাঁধার সম্ভাবনা থেকে যায়। নিয়মিত এই অবহেলা চলতে থাকলে হৃদরোগে আক্রান্ত পর্যন্ত হতে পারেন। দেখা দিতে পারে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যাও।

ডায়াবেটিসের চিকিত্‍সায়

যারা ডায়াবেটিসে ভুগছেন, তাদের পানি খাওয়া নিয়ে আরও বেশি সচেতন হওয়া প্রয়োজন। ডায়াবেটিস রোগীদের ডিহাইড্রেশন হলে হঠাৎ করেই কমে যেতে পারে রক্তচাপ, হতে পারে হজমের সমস্যা।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/সিফাত