ওই ব্যক্তির পেটে গাঁজার ছিলিমের পাশাপাশি রয়েছে চাবি, চেন, পেরেক ও কয়েন-সহ মোট ৮০টি জিনিস। ছবি:সংগৃহীত

পেটে খুব ব্যাথা পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন এক ব্যক্তি।স্বাভাবিকভাবেই কারণ জানার লক্ষে তার পেটে এক্স-রে করার সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা। তবে এক্স-রে রিপোর্ট দেখে আর স্বাভাবিক থাকতে পারে নি চিকিৎসকরা।

দেখা যায়, ওই ব্যক্তির পেটে গাঁজার ছিলিমের পাশাপাশি রয়েছে চাবি, চেন, পেরেক ও কয়েন-সহ মোট ৮০টি জিনিস। অদ্ভুত এই ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের উদয়পুরে। এক্স-রে রিপোর্ট দেখার পর আর দেরি করেনি চিকিৎসকরা,চার জনের একটি দল করে তার পেটের ভিতর অস্ত্রপাচার শুরু করেন তারা। তারপরই তাঁর পেট থেকে উদ্ধার হয় ৮০০ গ্রামের মোট ৮০টি ধাতব বস্তু

অদ্ভুত এই ঘটনা দেখার পর চিকিৎসক ডিকে শর্মা বলেন, “এই বিষয়টিকে বিরল ঘটনা হিসেবেই দেখছি আমরা। সম্প্রতি পেটে ব্যথা নিয়ে আমাদের এখানে ভর্তি হয়েছিলেন এই ব্যক্তি। পরে তাঁকে এক্স-রে করতে বলা হয়। সেই রিপোর্ট দেখেই চমকে উঠি আমরা। দেখা যায় ওই ব্যক্তির পেটের ভিতরে পেরেক-সহ ছোট ও বড় মিলিয়ে অনেকগুলি ধাতব জিনিস রয়েছে। ওই ব্যক্তি মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ার পাশাপাশি মাদক সেবন করেন বলেও জানতে পেরেছি। অনেকদিন ধরে পেটে যন্ত্রণা হলেও তিনি সবার কাছে বিষয়টি গোপন রেখেছিলেন। পরে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যাওয়ায় বাড়ির লোকজনকে জানান। তাঁরা এসে ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তি করেন।” হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্তমানে ওই ব্যক্তির শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে। তাঁর চিকিৎসা চলছে।

আজকের পত্রিকা/এসএমএস/এমএইচএস