রাজধানীর গুলিস্তান ও সাইন্সল্যাব মোড়ে কর্তব্যরত পুলিশের উপর হামলাকারী দুই জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট (সিটিটিসি)। ১৩ অক্টোবর রবিবার দিনগত রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ জানায়, গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মেহেদী হাসান তামিম ও আবদুল্লাহ আজমির। তারা নব্য জেএমবি’র সামরিক শাখার সদস্য। তাদের কাছ থেকে ১টি ল্যাপটপ এবং ৩টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত দু’জন খুলনা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) থেকে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করে। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময়ে তারা নিষিদ্ধ সংগঠনের কার্যক্রমের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তারা ভোলার একটি দুর্গম চরে প্রশিক্ষণ নেয়।

চলতি বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর নারায়নগঞ্জ থেকে আটক করা হয় ফরিদ উদ্দিন রুমির ছোট ভাই জামাল উদ্দিন রফিককে। এই রফিকের নেতৃত্বে একটি সামরিক শাখা প্রতিষ্ঠা করে সংশ্লিষ্ট গ্রুপটি। এর পরেই এই গ্রুপটি পরিকল্পনা করে তাদের তৈরি করা বোমা দিয়ে চলতি বছরের ২৯ এপ্রিল গুলিস্তানে এবং ৩১ আগস্ট সাইন্সল্যাবে বোমা (আইইডি) হামলা চালায় বলে স্বীকার করে। এছাড়া মালিবাগ, পল্টন ও খামারবাড়ির বোমা হামলায় ব্যবহৃত বোমা তৈরিতে বন্ধু রফিককে সহায়তা করে।

১৪ অক্টোবর বেলা সাড়ে ১১ টায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘গ্রেফতারকৃত দুই আসামিকে আদালতে হাজির করে ১০ দিন করে রিমান্ড চাওয়া হবে। এই গ্রুপের আরো দুই আসামি পলাতক, তাদেরকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। আরো হামলা চালানোর পরিকল্পনা ছিলো তাদের। এরা অনলাইনে রেডিক্যলাইজড হয়ে জঙ্গিপনার জড়িয়ে পড়ে। সম্প্রতি তারা আইএস এর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিলো বলে আমরা তথ্য পেয়েছি।’

আজকের পত্রিকা/কেএফ