মাহমুদ উল্লাহ্‌
বিজনেস করেসপন্ডেন্ট

যদিও বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে বর্তমানে প্রায় ৩০ লক্ষ বিনিয়োগকারী রয়েছে তথাপি তাদের অধিকাংশই ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারী এবং তারা যথাযথ বিনিয়োগ শিক্ষায় শিক্ষিত নয়। যেহেতু তারা তালিকাভুক্ত কোম্পানির আর্থিক বিবরণী এবং অন্যান্য প্রাপ্ত তথ্যাদি সঠিকভাবে বিশ্লেষন করতে পারেন না সেহেতু তারা গুজব, ধারণা এবং আবেগের ভিত্তিতে বিনিয়োগ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। এর ফলে বাজারে তথ্যের অসামজ্ঞস্যতা বৃদ্ধি পায়। শুধু তাই নয়, বিনিয়োগ সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে তারা বৃহৎ বিনিয়োগকারীদের অনুসরণ করে থাকে। এর ফলে বাজার কারসাজির সম্ভাবনা বহুগুনে বেড়ে যায়। যার ফলশ্রুতিতে পুঁজিবাজারে ভুল বিনিয়োগ সিদ্ধান্ত গ্রহণের ঘটনা ঘটে থাকে। সঠিক বিনিয়োগ শিক্ষা থেকে বঞ্চিত বিনিয়োগকারীরা গুজব, সংস্কার এবং আবেগের ভিত্তিতে বিনিয়োগ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে শুধু যে নিজেদের ভবিষ্যত বিপন্ন করে তা নয়, তাদের কার্যক্রমে পুঁজিবাজার তথা দেশের অর্থনীতি অস্থিতিশীল হয়ে পড়ে।

বিনিয়োগ শিক্ষা ব্যক্তিগত আর্থিক ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে জ্ঞান। সঠিক বিনিয়োগ শিক্ষার ফলে আর্থিক জালিয়াতি থেকে রক্ষা পাওয়া এবং সুরক্ষিত আর্থিক ভবিষ্যত গড়ে তোলার দ্বৈত সুবিধা পাওয়া যায়। বিনিয়োগ শিক্ষা বিনিয়োগকারীদের বিভিন্ন বিনিয়োগ পন্যের উপযুক্ততা সম্পর্কে প্রয়োজনীয় জ্ঞান প্রদান করে তাদেরকে সঠিক বিনিযোগ সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করে।

আর তাই বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে বিনিয়োগকারীদের জন্য প্রাত্যাহিক শিক্ষা কার্যক্রম অনিুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে এই শিক্ষা কার্যক্রম অনিুষ্ঠিত হবে।

আগারগাও সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন ভবন, ই-৬সি শেরই বাংলানগর। ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। ওয়েবসাইটটি হচ্ছে: www.financialliteracybd.com