পরকীয়া আসলে কিছু দম্পতিকে সুখী করে তোলে। ছবি: সংগৃহীত

অবিশ্বস্ততা একটি সম্পর্কের মধ্যে বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। এর মানে হলো আপনার সঙ্গী সুখী এবং সন্তুষ্ট নন। কিন্তু এই বিষয়ে সাম্প্রতিক এক গবেষণায় বলা হয়েছে, পরকীয়া আসলে কিছু দম্পতিকে সুখী করে তোলে। অবাক হচ্ছেন? চলুন জেনে নিই পরকীয়া কীভাবে সুখ এনে দিতে পারে-

মিসৌরি স্টেট ইউনিভার্সিটির ডা. অ্যালিসিয়া ওয়াকার বিবাহিতদের ডেটিং অ্যাপ থেকে হাজার হাজার ব্যবহারকারীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে। তাদের বিবাহিত জীবন নিয়ে একাধিক প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করে তারা জানতে চেয়েছে কীভাবে পরকীয়া তাদের জীবনে শারীরিক ও মানসিকভাবে সুখ এবং সন্তুষ্টি এনে দিয়েছে।

আশ্চর্যজনকভাবে, শতকরা দশজন অংশগ্রহণকারীর মধ্যে প্রতি সাতজন স্বীকার করেছেন, পরকীয়া তাদের জীবনে অধিক সন্তুষ্টি এনে দিয়েছে, এমনকি বিবাহিত জীবন থেকেও বেশি।

এই গবেষণায় দেখা গেছে, পরকীয়ায় নারীরা বেশি সন্তুষ্ট থাকেন। তারা বাইরে কারোর সাথে সম্পর্ক স্থাপন করে সুখে থাকার কারণ হলো, ওই সম্পর্কে তারা দ্বিধাহীন এবং কোনো প্রকার প্রত্যাশা ছাড়াই মেলামেশা করতে পারেন।

ওই সম্পর্ক শেষ হয়ে যাওয়ার পরও তারা সুখী থাকে। ছবি: সংগৃহীত

ওই সম্পর্ক শেষ হয়ে যাওয়ার পর কী হয়? তাদের জীবন কি স্বাভাবিকভাবেই চলতে থাকে? গবেষণায় বলা হয়েছে, ওই সম্পর্ক শেষ হয়ে যাওয়ার পরও তারা সুখী থাকেন। পাবমেড জার্নালে প্রকাশিত আরেকটি গবেষণাপত্রও জানাচ্ছে, যারা তাদের বিয়ের বাইরে সম্পর্ক রাখেন এবং তাদের সঙ্গীর কাছে এটি প্রকাশ করেন না, তারা ব্যক্তি জীবনে খুবই প্রাণোচ্ছল থাকেন।

যদিও গবেষণায় দেখা যায় , অবিশ্বস্ততা কিছু বিবাহিত মানুষের জীবনে সন্তুষ্টি বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করেছে, তবে এটি আপনার বিবাহিত জীবনে দ্বন্দ্বগুলি সমাধান করার জন্য একটি সুস্থ সমাধান না।

আজকের পত্রিকা/রিয়া/সিফাত