মন্ত্রী মনোজকান্তি মঞ্চে দাঁড়িয়ে তারই নারী সহকর্মী মন্ত্রী সান্ত্বনা চাকমার কোমরে হাত দেন। ছবি : সংগৃহীত

ত্রিপুরার বিজেপি মন্ত্রী মনোজকান্তি দেব নারী সহকর্মীর সঙ্গে অশ্লীলতার দায়ে অভিযুক্ত। মন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি জানিয়েছে বামফ্রন্ট ও স্থানীয় কয়েকটি ছোট রাজনৈতিক দল।

১০ ফেব্রুয়ারি রবিবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ত্রিপুরায় একটি জনসভা করেন। সেখানে বেশ কয়েকটি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। যেই মঞ্চে প্রধানমন্ত্রী প্রকল্পগুলি উদ্বোধন করেছেন  সেই মঞ্চেই অশালীন আচরণ করেন ত্রিপুরার মন্ত্রী মনোজকান্তি দেব।

মনোজকান্তি  মঞ্চে দাঁড়িয়ে তারই নারী সহকর্মী ত্রিপুরার সমাজকল্যাণ এবং সমাজবিদ্যা বিভাগের মন্ত্রী সান্ত্বনা চাকমার কোমরে হাত দেন। ব্যাপারটা বুঝতে পেরে তৎক্ষণাৎ  হাত সরিয়ে দেন সান্ত্বনা। এই ঘটনার ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার পরপরই মনোজকান্তি দেবের পদত্যাগ দাবি করেছে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বামফ্রন্ট।

ত্রিপুরার বামফ্রন্টের কনভেনর বিজন ধর বলেছেন, ‘মনোজকান্তি দেব একজন নারী মন্ত্রীকে অত্যন্ত আপত্তিকরভাবে স্পর্শ করেছেন। যে মঞ্চে তিনি এই কাজ করেছেন, সেই মঞ্চ থেকেই ভাষণ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। মনোজকান্তি দেবকে এক্ষুণি বরখাস্ত করে তাকে গ্রেফতার করা উচিত।’

বামফ্রন্টের  পাশাপাশি কয়েকটি ছোট দলও একই দাবি জানিয়েছে। যদিও, সরকারপক্ষ এই দাবি মানতে নারাজ।