আটক ১৯ দালালের কয়েকজন।

নারায়ণগঞ্জ জেলার ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে দালালের দৌরাত্ব কমাতে এবং রোগীদের ভালোমানের সেবা প্রদানে অভিযান চালিয়ে র‌্যাব ১১।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টায় র‌্যাব-১১ এর এএসপি মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃতে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

এসময় ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসাপাতাল থেকে নারীসহ ১৯ দালালকে আটক করা হয়।

আটকৃতরা হলো, দুলাল হোসেন (৪২), মঞ্জুরুল ইসলাম (৫০), ফরিদ (৩০), আব্দুল খালেক (৩০), রিপন (৩৬), ইব্রাহিম (৩৫), বাদল মিয়া (৫০), মাকসুদা বেগম (২২), আব্বাসউদ্দিন (২৭)। এর মধ্যে অসুস্থ্য একজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ৯ জনকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়।

নির্বাহী ম্যাজিট্রেট মৌসুমী মান্নান ও এনডিসি মেজবাহ উল সাবেরিন এর নেতৃতে ভ্রাম্যমান আদালতে জিজ্ঞাসাবাদ ও যাচাই-বাছাই করে ১০ জনকে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয় এবং ১ জন মহিলাসহ মোট ৯ জনকে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয় বলে সাংবাদিকদের সাথে এক প্রেসব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন র‌্যাব-১১ এএসপি মোস্তাফিজুর রহমান।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ডাঃ সামসুদ্দোহা (আরপি) বলেন, কোন ডাক্তারের বিরুদ্ধে কোন প্রকারের অভিযোগ থাকলে আমাকে জানান, তার বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা গ্রহন করবো। সাধারণ মানুষের সেবা প্রদানে আমরা দিনভর কাজে নিয়োজিত থাকি। তাই এসব দালালদের প্রতিহত করার জন্য আমরা র‌্যাবের সাহায্য নিয়েছি এবং কোন ভাবেই যাতে রোগিদের হয়রানীর শিকার হতে না হয় সে বিষয়ে আমরা কঠোর রয়েছি।

র‌্যাব-১১ এর এএসপি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এমন অভিযান প্রতিনিয়ত থাকবে। শুধু ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাতপাতালেই নয় নারায়ণগঞ্জের সকল হাসপাতালে অভিযান পরিচালিত হবে।

আব্দুল্লাহ আল মাসুদ/নারায়ণগঞ্জ