নবীকে নিয়ে কটূক্তি : বোরহানউদ্দিনে সংঘর্ষে নিহত ৪

হযরত মোহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে ফেসবুকে হিন্দু যুবকের কটূক্তির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভোলার বোরহানউদ্দিনে পুলিশ ও জনতার সংঘর্ষে ৪ জন নিহত ও পুলিশসহ শতাধিক আহত হয়েছে।

রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বোরহানউদ্দিন সদর ঈদগাহ জামে মসজিদ মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

মুসলিম জনতার দাবি হযরত মোহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে ফেসবুকে আপত্তিকর কটূক্তি করার প্রতিবাদে তাদের পূর্ণ নির্ধারিত সমাবেশে তারা একত্রিত হলে তাদের শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ সমাবেশে পুলিশ বাধা দেয় পুলিশ। এবং তাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে কাদানি গ্যাস ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। এতে তাদের ৪ জন নিহত হয়।

নিহতরা হলেন, মাহফুজুর রহমান পাটোয়ারী (২৩), মিজান (৩০), মাহবুর রহমান (৩০) ও শাহিন (২৫)। তাৎক্ষনিক তাদের পুরো পরিচয় জানা যায়নি। এছাড়া তাদের ২শতাধিক লোক গুলিবিদ্ধ হয়।

নবীকে নিয়ে কটূক্তি : বোরহানউদ্দিনে সংঘর্ষে নিহত ৪

আহতরা বোরহানউদ্দিন, ভোলা সদর সহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে।

অপরদিকে পুলিশ দাবি করে তারা শান্তিপূর্ণ অবস্থান বজায় রাখতে ঘটনাস্থলে সকল কার্যক্রম পরিচালিত করছেন। হঠাৎ করে কিছু উশৃঙ্খল জনতা তাদের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে তাদের ধাওয়ায় দেয়। তারা মসজিদের ২য় তলায় আশ্রয় নেয়। সেখানে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে তাদের ১০/১২ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়।

তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেয়ার চেষ্টা করে। তবে তারা জানান, ৩ জন মুসলিম জনতা নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় তারা প্রায় ১২-১৩ জন কে আটক করেছে পুলিশ। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

এব্যাপারে ভোলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কাউসার জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে বরিশাল বিভাগিয় ডিআইজি, জেলা প্রশাসক সহ প্রশাসনের উদ্ধর্তন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে রয়েছেন।

-আব্দুল মালেক/ভোলা