বাচ্চা অন্য কিছু খাওয়ার আগ পর্যন্ত মায়ের দুধ পানই একমাত্র খাদ্য। ছবি: সংগৃহীত

নবজাতকের যত্ন নেওয়া সহজ কাজ নয়, বিশেষ করে যদি আপনি একজন নতুন মা হন। সন্তানের যত্ন নেওয়া একটি নতুন মায়ের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন। নবজাতকের নার্সিং এবং  নতুন মা হিসেবে আপনার নিজের যত্ন কম কথা নয়।

বাচ্চা অন্য কিছু খাওয়ার আগ পর্যন্ত মায়ের দুধ পানই একমাত্র খাদ্য। শিশুর বৃদ্ধির সাথে সাথে বুকের দুধের চাহিদাও বাড়ে। ফলস্বরূপ, অনেক মায়েদের প্রায়ই ভয় হয় যে তাদের দুধ শিশুটির জন্য যথেষ্ট নয় এবং তাদের শিশুর চাহিদা মেটানোর জন্য বুকের দুধ বাড়ানোর উপায়গুলি সন্ধান করে থাকে।

নিচের খাবারগুলো নতুন মায়ের খাদ্য তালিকায় থাকা জরুরি-

ওটমিল

শিশুর জন্মের পরে মায়ের ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের জন্য ওটমেল ভালো। ছবি: সংগৃহীত

ওটমেল স্তনে দুধ তৈরি ও বৃদ্ধি করার জন্য একটি ভালো উৎস। এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার আছে, যা পাচক সিস্টেমের জন্য সত্যিই ভালো কাজ করে। তাছাড়া, শিশুর জন্মের পরে মায়ের ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের জন্য ওটমেল ভালো।

গাজর

গাজরে প্রচুর পরিমাণে বেটা ক্যারোটিন আছে। ছবি: সংগৃহীত

গাজরের রস বুকে দুধ আনতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে। গাজরে প্রচুর পরিমাণে বেটা ক্যারোটিন আছে, যা নতুন মায়ের বুকে দুধ আনতে সাহায্য করে। এতে কার্বোহাইড্রেট এবং পটাসিয়ামও আছে, যা গর্ভাবস্থার পরে অতিরিক্ত ওজন কমানোর জন্য আপনাকে সাহায্য করবে।

বাদাম

বাদাম হচ্ছে সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর খাবার। ছবি: সংগৃহীত

বাদাম হচ্ছে সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর খাবার। এতে প্রচুর পুষ্টি রয়েছে, ফলে আপনি যা চান তা সহজেই পাবেন। বাচ্চা হবার পর ক্যাশিওনাট, কাঠবাদাম, পেস্তাবাদাম বা ওয়ালনাট খেতে পারেন।

পেঁপে

কাঁচা পেঁপেতে আছে প্রচুর পরিমাণে গ্যালাক্টুগো। ছবি: সংগৃহীত

কাঁচা পেঁপে আপনাকে প্রাকৃতিকভাবে আরাম দিতে সাহায্য করে। কাঁচা পেঁপেতে আছে প্রচুর পরিমাণে গ্যালাক্টুগো, যা বুকে বুধ আনতে সাহায্য করে। এটি আপনি সালাদ হিসেবে খেতে পারেন।

জিরা

জিরা কেবল বুকের দুধ বাড়ায় না বরং গ্যাস কমাতে সাহায্য করে। ছবি: সংগৃহীত

জিরা কেবল বুকের দুধ  বাড়ায় না বরং গ্যাস কমাতে সাহায্য করে। রাতে এক চামচ জিরা  পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে সেই পানি খালি পেটে খাবেন। এতে নানা উপকার পাওয়া যায়।

মেথি

মেথিতে রয়েছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি। ছবি: সংগৃহীত

বুকের দুধ বৃদ্ধির জন্য দীর্ঘদিন থেকে মেথি খাওয়া হচ্ছে। মেথিতে রয়েছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি যা শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশে খুবই সহায়ক। অনেকে মেথি খালি খালি খায়। আবার এটি সালাদে মেশাতে পারেন।

রসুন

প্রতিদিন রসুন খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। ছবি: সংগৃহীত

রসুন শুধুমাত্র খাবারে আলাদা স্বাদ এনে দেয় না, বুকের দুধ বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। প্রতিদিন রসুন খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় ও হৃদরোগ প্রতিরোধ করবে।

ডাল

নতুন মায়েদের জন্য ডাল খুবই উপকারী। ছবি: সংগৃহীত

নতুন মায়েদের জন্য ডাল খুবই উপকারী, কারণ এতে প্রচুর পরিমাণে মিনারেল, ভিটামিন আর প্রোটিন রয়েছে। বাচ্চা হওয়ার পর আপনার খাদ্য তালিকায় প্রতিদি ডাল রাখুন।

আজকের পত্রিকা/জেবি