মাহমুদ উল্লাহ্‌
বিজনেস করেসপন্ডেন্ট

শুধু ব্যবহারের প্রয়োজনে নয়, ঘর সাজাতেও আজকাল ফার্নিচার লাগে। সুন্দর ফার্নিচার ঘরের সৌন্দর্যও বৃদ্ধি করে। এখন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে মডার্ণ ফার্নিচার। যা শৈল্পিক দিক থেকে তো বটেই বৈচিত্রের দিক থেকেও অনন্য। তেমনই একটি ফার্নিচার প্রতিষ্ঠানের নাম নাদিয়া ফার্নিচার। এবারের বাণিজ্য মেলায় অনেক প্যাবিলিয়নের পাশাপাশি নাদিয়া ফার্নিচারের প্যাভিলিয়নটি সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। এবার তারা তাদের পন্যে নতুন সংযোজন করেছে  মেট্রিক্স ও কাঠের দরজা।

১৯৯১ সালে এ করিম মজুমদারের হাত ধরে প্রতিষ্ঠানটি যাত্রা শুরু করে। শখের বসে চাকরি ছেড়ে ব্যবসা শুরু করলেও অল্প কিছুদিনের মধ্যেই তাদের ফার্নিচার মানুষের মন জয় করে ফেলে। ফলে তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।

এখন বাসা বাড়ির ঘর সাজাতে ফার্নিচারের সব অনুসঙ্গই নাদিয়া ফার্নিচারে পাওয়া যায়। এছাড়াও তারা অফিস ফার্নিচারও বিক্রি করে থাকে। ইন্টেরিয়র ফার্নিচারও পাওয়া যায় তাদের কাছে। বিভিন্ন নামি দামি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে নাদিয়া ফার্নিচার ভোক্তাদের মন জয় করে চলছে। বাসা বা অফিসে ফার্নিচার ব্যবহারে যাতে কম জায়গা লাগে তা মাথায় রেখে পাশ্চাত্য দেশগুলোর মতো  বিভিন্ন ডিজাইনের ও আকারের ফার্ণিচার তৈরি করছে তারা।

ডাইনিং রুম সেট, লিভিং রুম সেট, ডিভান সেট, বেড রুম সেট থেকে অফিস। সব ধরনের ফার্নিচার নিয়েই এবার নাদিয়া ফার্নিচার মেলায় এসেছে। তাদের শো-রুম অথবা অনলাইনেও এসব ফার্নিচার অর্ডার করা যাবে। মেলার ৮০ শতাংশ ফার্নিচারই এবার নতুন কালেকশন বলে বলে জানান মার্কেটিং অফিসার সুমন পারভেজ। বর্তমানে তাদের ২৬টি শোরুম রয়েছে সারা দেশে।