হাইকোর্ট।

গত ১৪ মে হাইকোর্টে অনলাইন পত্রিকা নয়াবার্তার সম্পাদক আবু বকর সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার নকিপুর খাদ্য গুদামে ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ন চাল মজুদ আছে মর্মে হাইকোর্টে রিট করেন। যার নম্বর ৪৮৬৬/১৯।

হাইকোর্ট দুই সপ্তাহের মধ্যে চাল পরীক্ষা নিরীক্ষা করে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য নিরাপদ খাদ্য অধিদপ্তরকে নির্দেশনা দেন।

নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের গঠিত তদন্ত কমিটির আহবায়ক মজ্ঞুর মোর্শেদ আহমেদ সদস্য (যুগ্ন সচিব পদ মর্যাদায়) ও ড. সহদেব চন্দ্র সাহা পরিচালক (উপসচিব) কর্তৃক ২৬ মে তারিখে সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার নকিপুর খাদ্য গুদাম সরেজমিন পরিদর্শন করেন।

জানা গেছে, পরিদর্শনকালে খাদ্য গুদামে মজুদকৃত খাদ্যের মান, নিরাপত্তা, মেয়াদ এবং পুরাতন চাল নতুন বস্তায় সংরক্ষণের অভিযোগ বিষয়ে তদন্ত ও নমুনা সংগ্রহ করেন। নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের গঠিত তদন্ত কমিটি কর্তৃক সংগৃহীত নমুনা পরীক্ষা, চালের গুনগত মান সম্পর্কে প্রতিবেদন ২৩ জুন উচ্চ আদালতে দাখিল করা হয়।

আদালত নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের প্রতিবেদনে সন্তোষ প্রকাশ করে দাখিলকৃত রিট খারিজ করে দেন।

এ বিষয়ে শ্যামনগর উপজেলার খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা বলেন, সত্যকে কখনও আবরণে ঢেকে রাখা যায় না। সত্য তার আপন মহিমায় উৎভাসিত হবেই।

এটাই তার বড় প্রমান।ভেটখালী সরকারি খাদ্য গুদামের জায়গা দখল করে অবৈধ ভাবে দোকান নির্মাণ করে হুমায়ুন কবির নামীয় ব্যক্তি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছে। তাছাড়া খাদ্য বিভাগের নামে হুমায়ুনের দেওয়া মামলা গুলি সরকারের পক্ষে নকিপুর খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেখভাল করায় হুমায়ুন নিজে আবার কখনও অন্যকে দিয়ে এভাবে মিথ্যা মামলা দিয়ে হেনেস্তা করছে।

আজকের পত্রিকা/বৈশাখী/সাতক্ষীরা