নকল সনি পণ্যে বাজার সয়লাব নিয়ে সনি র‌্যাংগস এর সংবাদ সম্মেলন। ছবি: সনি

র‌্যাংগস ইলেকট্রনিকস লিঃ যা ‘সনি-র‌্যাংগস’ নামে সর্বাধিক পরিচিত, ১৩ জুন বৃহস্পতিবার সনি সিসিএম সেন্টারে ‘প্রতারিত ক্রেতা, প্রতারিত সমাজ’- নকল সনি পণ্যে বাজার সয়লাব প্রসঙ্গে একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সনি ইন্টারন্যাশনাল লিঃ এর বাংলাদেশ শাখার প্রধান- এলেক্স ই, সনি সাউথ ইষ্ট এশিয়ার রিজিওনাল মার্কেট ডেভেলপম্যান্ট সেন্টারের কর্মকর্তাবৃন্দ কিথ লিন, টিভি মার্কেটিং ডিপার্টমেন্টের জেমি লিসহ র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিঃ-এর জেনারেল ম্যানেজার, মার্কেটিং এন্ড সেলস তানভীর হোসেন উক্ত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

অন্যান্যদের মধ্যে র‌্যাংগস গ্রুপ অব কোম্পানীজের অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, বিভিন্ন সংবাদপত্র ও স্যাটেলাইট চ্যানেলের সাংবাদিকবৃন্দ এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

টেলিভিশনের জগতে বিশ্বব্যাপি সনি একটি জনপ্রিয় নাম, আর বাংলাদেশের টেলিভিশনের সর্বাধিক জনপ্রিয় ব্র্যান্ড হলো- সনি টেলিভিশন। র‌্যাংগস ইলেকট্রনিকস লিঃ, সনি কর্পোরেশন, টোকিও, জাপান কর্তৃক বাংলাদেশে সনি পণ্য বাজারজাত করার একমাত্র অনুমোদিত পরিবেশক, সনি লোগো ব্যবহারে অনুমতিপ্রাপ্ত প্রস্তুতকারক। সনি ব্র্যান্ডের প্রতি ক্রেতাদের আকর্ষণ, আস্থা, নির্ভরতা, বিশ্বাস আর ব্যাপক চাহিদার কথা মাথায় রেখে এক শ্রেণীর অসাধু মুনাফালোভী ব্যবসায়ী-প্রতিষ্ঠান খোলা এলইডি টেলিভিশনের গায়ে ও কার্টনে সনি লোগো স্টিকার ব্যবহার করে এবং সফটওয়্যারের মাধ্যমে সনি লোগো টেলিভিশনের মেমোরিতে ঢুকিয়ে দিচ্ছে, যাতে টেলিভিশন অন করলেই স্ক্রিনে সনি লোগো ভেসে উঠে; এই দুই মিলে নকল সনি ব্রাভিয়া এলইডি টেলিভিশন তৈরী করে প্রতিনিয়ত অসংখ্য-নিরীহ ক্রেতাদের প্রতারিত করছে এই ব্যবসায়ী চক্র।

র‌্যাংগস ইলেকট্রনিকস লিঃ ছাড়া অন্য আর কোনো প্রতিষ্ঠানের সনি পণ্য আমদানী করার অনুমতি না থাকায়, বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে পুরাতন-রিফারবিসড সনি টিভি আমদানী করে, নতুন বলে চালিয়ে দিচ্ছে। একই সাথে ক্রেতা সাধারণ হারাচ্ছেন সনি পণ্যের উপর তাদের দীর্ঘদিনের অবিচল আস্থা, আর বাংলাদেশ সরকার বঞ্চিত হচ্ছে কোটি টাকার জাতীয় রাজস্ব হতে।

এ ধরণের অসংখ্য অভিযোগ র‌্যাংগস ইলেকট্রনিক্স লিঃ-এর কাছে আসছে প্রতিনিয়ত, দায়ের হচ্ছে প্রতারণার মামলা জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে।

আজকের পত্রিকা/এমইউ/সিফাত