বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। ছবি : আজকের পত্রিকা

নুসরাত হত্যার বিচারে আমরা দেখছি ক্ষমতাসীন দল এবং প্রশাসনের সাথে যুক্ত কিছু ব্যক্তিরা জড়িত আছেন হয়তো তাদেরও বিচার হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। ১৬ এপ্রিল মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ওলামাদল আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, সাংবাদিক দম্পতি সাগর রুনি হত্যায় হত্যাকারীদের গ্রেফতারের ৪৮ ঘণ্টার সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। ৪৮ মাসে হয়নি, ৪৮ বছরেও হবে না।  এক দিনের মানববন্ধনে এ দেশকে বিচারহীনতা এবং অপমৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা করা যাবে না। আমাদের সারা দেশে সকল ক্ষেত্রে সম্মিলিত প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘আমরা দেখেছি এর আগে কোনো নারী হত্যা বা ধর্ষণের বিচার হয়নি। এই বিচারহীনতা থেকে আমরা যতো দিন মুক্ত হতে না পারবো ততোদিন পর্যন্ত মর্যাদাশীল মানুষ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও তাদের সন্তান নিরাপদ নয় এবং আমাদের মা বোনরাও নিরাপদ না।’

স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, জনগণের কাছে দায়বদ্ধ, জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার আমাদের দেশে নাই, যদি জনগণের দ্বারা নির্বাচিত সরকার থাকতো তাহলে এসব হত্যাকাণ্ডের বিচার করতো। যেখানে আমাদের সন্তানরা নিরাপদে থাকবে না, মা বোনদের নিরাপত্তা থাকবে না, যেখানে বিচারহীনতা সংস্কৃতি আমাদের সমস্ত অর্জনকে গ্রাস করে নেবে এমন একটা দেশ গড়তে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করিনি।’

খালেদা জিয়ার অসুস্থতার কথা জানিয়ে নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘তাকে জেলখানায় আটকিয়ে রেখে তার অসুস্থতা আরো বাড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। যা তার জন্য আরো কঠিন কারণ হতে পারে।’

আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সুর্বন ফসল জানিয়ে নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘গণতন্ত্রকে লুট করা হয়েছে। দেশে যখন গণতন্ত্র অবরুদ্ধ, যখন গলা টিপে ধরা হয়েছে, তখন মুক্তির জন্য প্র‍য়োজন বিএনপির নেতৃত্বে গণআন্দোলন গড়ে তুলা।’

আজকের পত্রিকা/রাজনীতি/আ.স্ব/