বাঁশখালীতে পেঁয়াজের দাম বেশি রাখায় ৯ দোকানকে জরিমানা!

দেশের সব গণমাধ্যমের শিরোনামে এখন পেঁয়াজ। টিভি চ্যানেলের টকশো জুড়েও পেঁয়াজের দৌঁড়াত্ব। পেঁয়াজ ঝাঁঝ এখন রাজনীতির মাঠেও বিচরণ করছে।

কারণ গতকাল বৃহস্পতিবারে ডাবল সেঞ্চুরি করেছে পেঁয়াজ। পাইকারী বিক্রেতারাই এ মসলাটি ২০০ টাকার এক পয়সা কমে বিক্রি করছেন না।

যা এহাত ওহাত পেরিয়ে খুচরা বাজারে ২২০ ছাড়িয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার পরিদর্শনে গিয়ে দেখা যায় ২০০-২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি।

পেঁয়াজ কিনতে নাভিশ্বাস যেন দেশবাসীর। অনেকে রান্নায় পেঁয়াজের ব্যবহার প্রায় ছেড়েই দিয়েছেন। বাংলাদেশে পেঁয়াজের এমন আকাশচুম্বী মূল্যে অবাক হয়েছেন প্রবাসীরা।

তারা বলছেন, এই মুহূর্তে বিশ্বের যে কোনো দেশের চাইতে বাংলাদেশে পেঁয়াজের দাম সবোর্চ্চ। এমন কি আফ্রিকার দেশ উগান্ডা, সুদানেও বাংলাদেশের চেয়ে অনেক কম দামে পেঁয়াজ মিলছে বাজারে।
এর প্রমাণও দিয়েছেন তারা। বাংলাদেশ থেকে মধ্যপ্রাচ্য, ইউরোপ, আমেরিকায় যাওয়া প্রবাসীরা জানিয়েছেন বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সেসব দেশে পেঁয়াজের দাম।

লন্ডন থেকে বাংলাদেশি সাংবাদিকর জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের খুচরা বাজারে পেঁয়াজের দাম যখন কেজি প্রতি ২২০ টাকায় দাঁড়িয়েছে তখন লন্ডনের বাজারে পেঁয়াজের খুচরা মূল্য ছিল প্রতি কেজি বাংলাদেশি টাকায় ৫৫ টাকা।

তবে বড় বড় চেইনশপে ২৫ কেজি পেঁয়াজের বস্তার দাম ছিল ৮ পাউন্ড। সে হিসাবে এক কেজির মূল্য ৩২ পেন্স। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রতি কেজি ৩৫ টাকা করে পড়ছে।

যেন বিনা মূল্যে পেঁয়াজ দিচ্ছে জার্মানির বার্লিন শহর। দেশের পেঁয়াজের দাম শুনে এমন মন্তব্য জার্মানির বাংলাদেশি অভিবাসীদের। তারা বলছেন, বার্লিনে এখন প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে মাত্র ৯ টাকায়!