বিড়ি শ্রমিকদের মানববন্ধন।

বিড়ির ওপর বৈষম্যমূলক শুল্ক প্রত্যাহার ও এ শিল্পের সাথে জড়িতদের বেকারত্বের হাত থেকে বাঁচাতে বিড়ি শিল্পকে কুটির শিল্প ঘোষণার দাবিতে ফরিদপুরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বিড়ি ভোক্তারা।

১৫ মে বুধবার বিকেল ৪টায় ফরিদপুর জেলা শহরের পুরাতন বাস স্ট্যান্ডে পৌর কমিউনিটি অডিটোরিয়ামের সামনে বরিশাল মহাসড়কে আধ ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। মানববন্ধন শেষে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান বরাবর স্মারকলিপি পাঠানো হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি মোঃ সামসু শেখ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ করিমসহ বৃহত্তর ফরিদপুর অঞ্চলের বিড়ি শ্রমিকেরা।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মেহনতি ও গরিব মানুষেরা এ শিল্পের সাথে জড়িত। ভারতে এ শিল্পকে কুটির শিল্প ঘোষণা করা হয়েছে। অথচ আমাদের দেশে বিদেশি সিগারেটে ভ্যাট না বসিয়ে বিড়ি শিল্পকে ধ্বংস করার জন্য শুল্ক আরোপ করা হচ্ছে। তারা এ সময় এটাকে রীতিমতো অন্যায় একটি পদক্ষেপ বলে উল্লেখ করেন।

বিড়ির উপর অর্পিত কর প্রত্যাহার, বিড়ি শিল্পকে কুটির শিল্প ঘোষণা, বিদেশি সিগারেট বাংলাদেশে বিক্রি বন্ধ করা, বাজেটে বিড়ি ও সিগারেটের ওপর আরোপিত কর বৈষম্য দূরকরাসহ ৭ দফা দাবি তুলে ধরেন বিড়ি ভোক্তা পক্ষের সভাপতি মোঃ সামসু শেখ।

এ সময় তারা আরো বলেন, বিড়ি ও সিগারেট একই জাতীয় পণ্য হলেও বাজেটে বিড়ির তুলনায় সিগারেটের দাম কম বৃদ্ধি পায়। বিদেশি তামাক কোম্পানিগুলোকে বেশি সুবিধা দেওয়ায় দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম। ফলে দেশীয় এসব প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে জড়িত হাজার হাজার মানুষ বেকার হয়ে পড়বে। বক্তারা দেশীয় এ শিল্পকে বাঁচাতে ব্যবস্থা গ্রহণে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

ইয়াকুব আলী তুহিন/ফরিদপুর/জেবি