এম আব্দুর রহিম সমাজ কল্যাণ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা কেন্দ্র আয়োজিত জননেতা এম আব্দুর রহিমের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের উজ্জ্বল নক্ষত্র এম আব্দুর রহিম তাঁর আদর্শ, দেশপ্রেম ও সৎকর্মের মধ্যে দিয়ে গণমানুষের হৃদয়ে শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় অধিষ্ঠিত হয়েছেন। মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা পরবর্তীকালে তাঁর অবদানের কথা দেশের মানুষ শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে।

এসময় তিনি নতুন প্রজন্মকে এম আব্দুর রহিমের আদর্শ অনুসরণের আহবান জানান।

তিনি ১৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকেলে দিনাজপুরে ঐতিহাসিক গোর এ শহীদ ময়দানে এম আব্দুর রহিম সমাজ কল্যাণ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা কেন্দ্র আয়োজিত জননেতা এম আব্দুর রহিমের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণ সভায় এ কথা বলেন।

স্পীকার বলেন, যুগে যুগে পৃথিবীতে এমন কিছু মানুষের আবির্ভাব ঘটে যাঁরা নিজের চেয়ে দেশ ও জাতির কল্যাণের কথা অধিক গুরুত্বের সাথে চিন্তা করেন। মরহুম এম আব্দুর রহিম ছিলেন তেমনই একজন। তিনি দেশের জন্য ও এ অঞ্চলের গণমানুষের অধিকার আদায়ে আজীবন সোচ্চার ছিলেন।

তিনি বলেন, এম আব্দুর রহিম ছিলেন শিক্ষানুরাগী আদর্শবান ব্যক্তিত্ব। সমাজ সেবায় তিনি রেখেছেন উজ্জ্বলতার স্বাক্ষর। তিনি ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক সহচর, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, সংবিধান প্রণেতা—এ আদর্শবান নেতা নতুন প্রজন্মের কাছে অনুকরণীয়।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে—এগিয়ে যাবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশকে ‌আত্মমর্যাদাশীল জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে গেছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ অনন্য উচ্চতায় উল্লেখ করে তিনি বলেন, উন্নয়নের সকল সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ়–দারিদ্রের হার ৪০ শতাংশ থেকে ২১ শতাংশে কমে এসেছে। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হবে বাংলাদেশ।

অনুষ্ঠানে এম আব্দুর রহিম সমাজকল্যাণ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা কেন্দ্রের সভাপতি এডভোকেট আজিজল ইসলাম জুগলু এর সভাপতিত্বে মরহুম এম আব্দুর রহিমের জেষ্ঠ্য পুত্র বিচারপতি এনায়েতুর রহিম, বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক নঈম নিজাম, একাত্তর টিভি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল হক বাবু বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে এম আব্দুর রহিম এর কনিষ্ঠ পুত্র বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম, পুলিশ সুপার সৈয়দ আবু সায়েম, এম আব্দুর রহিম সমাজকল্যাণ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা কেন্দ্রের সভাপতি এডভোকেট আজিজল ইসলাম জুগলু, কার্যকরী সভাপতি সফিকুল হক ছুটু, সাধারণ সম্পাদক চিত্ত ঘোষ উপস্থিত ছিলেন।

পরে এম আব্দুর রহিমের ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন স্পীকার। এর আগে দুপুরে স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী দিনাজপুরে পৌঁছে জননেতা এম আব্দুর রহিমের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং এম আব্দুর রহিমের রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মোনজাতে অংশ নেন।

-এস