মুসলিম বিয়েতে ‘দেনমোহর’ বলতে বুঝায় আল্লাহ কর্তৃক নির্দেশিত স্বামীর পক্ষ থেকে স্ত্রীকে প্রদত্ত অর্থ-সম্পদ। এটি মুসলিম আইনে একটি অপরিহার্য অংশ। কনের জীবন সুরক্ষিত করতে নির্দিষ্ট অঙ্কের টাকা ধার্য করার কথা বলা হয়। তবে বরের থেকে কী নেবেন, সেটা একান্তই কনের অধিকার।

বিয়েতে দেনমোহর হিসেবে সাধারণত নগদ অর্থ বা গহনাগাটিই নেওয়া হয়ে থাকে। তবে ব্যতিক্রম ঘটনা ঘটালেন আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। সানজিদা পারভিন নামের এক শিক্ষার্থী বিয়েতে দেনমোহর হিসেবে টাকা না নিয়ে বরের কাছ থেকে বই নিয়ে সবার প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

সানজিদার এই আত্মসম্মানবোধই তাকে এ সম্মান এনে দিয়েছে। ইংরেজি সাহিত্যে পিএচডি করা সানজিদার যুক্তি তিনি যেহেতু তার বরের ওপরে আর্থিকভাবে নির্ভরশীল নয়, ফলে টাকা না নিয়ে বই নেওয়াটাকে শ্রেয় মনে করেছেন। যে কোনো অর্থ-সম্পদ থেকে বইয়ের মূল্য তার কাছে অনেক বেশি।

সানজিদা-মেহেবুব দম্পতির এই ভিন্ন রকম দেনমোহরের দেওয়া-নেওয়ার ঘটনা হয়তো দিন বদলেরই বার্তা এনে দিচ্ছে। যে কারোরই হবু স্ত্রী যখন টাকার বদলে বইয়ের কথা বলেন, তখন সেই স্ত্রীর প্রতি ভালো লাগার সঙ্গে সঙ্গে এক ধরনের শ্রদ্ধাবোধও তৈরি হয়।

দেনমোহর শুধুই কনের অধিকার। এটার পরিমাণ ঠিক করতে হবে বরের আর্থিক অবস্থা বিবেচনায় রেখে। আর কিছু টাকা কখনোই একটি জীবন সুরক্ষিত করার জন্য যথেষ্ট নয়। সানজিদার মতো শিক্ষিত নারীরা হয়তো তাই নিজের আত্মসম্মান অক্ষুণ রাখতে অর্থের বদলে জ্ঞানকে বেছে নিচ্ছেন।