এসপি মোস্তাফিজুর রহমান বক্তব্য রাখছেন

স্বাধীনতার মহানায়ককে অপমানিত করে কেউ টিকে থাকতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন সাতক্ষীরার নবাগত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান। পৃথিবীর কোনো দেশ নেই যেখানে স্বাধীনতা বিরোধীরা সরকার গঠন করেছে। আমাদের দুর্ভাগ্য যারা স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে বিশ্বাস করে না তারাও এক সময় বাংলাদেশের এমপি-মন্ত্রী হয়েছিল।

সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব অডিটোরিয়ামে বৃহস্পতিবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান আরও বলেন, ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ বিরোধীরা, ৭৫ এ বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীরা নিজেদের বাঁচাতে এক প্লাটফর্মে রয়েছে ঘটনার পর থেকেই। আজও রয়েছে। দেশের উন্নয়নের জন্য দেশের স্থিতিশীলতা থাকা দরকার।

অতীতে দেশের রাজনৈতিক পেক্ষাপটের কারণে দেশ ছিল অস্থিতিশীল। সেকারণে দেশের উন্নয়ন হয়নি। বর্তমানে দেশে উন্নত হচ্ছে। দেশ উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। এর ধারাবাহিকতা রক্ষায় দেশ স্থিতিশীল থাকা প্রয়োজন।

পুলিশ সুপার বলেন, আমরা গর্বিত ১৯৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনীকে প্রতিহত করতে সবার আগে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে বুকের রক্ত দিয়েছিল পুলিশ। ৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে রক্ষায় পুলিশ আপ্রাণ চেষ্টা করেছে। দুই পুলিশ জীবন দিয়েছে। ২০১৩ সালের ভয়াবহ সহিংসতার দিনে শান্তি ফেরাতে বাংলাদেশ পুলিশের ৪০ সদস্য প্রাণ দিয়েছেন। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমন করে আধুনিক ও দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখছে এখন বাংলাদেশ পুলিশ ।

পদ্মা সেতু, ফোর লেন, হাইওয়ে নির্মাণ এসব কিছুই সম্ভব হচ্ছে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি সম্পুর্ন নিয়ন্ত্রণে থাকার কারনে। অতীতে রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে মানুষ স্বাধীনতার সুফল ভোগ করতে পারেনি।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, কোন ক্ষুদ্র ও ব্যক্তি স্বার্থ নয় আসুন দেশকে ভালবাসি। মিডিয়া সমাজের দর্পণ। পুলিশ ও মিডিয়ার লক্ষ্য এক ও অভিন্ন। এই লক্ষ্যে কোনো মানুষের কিি ৎ উপকার করতে পারাটাই সফলতা। কিছু কিছু অনলাইনে ভ্রান্ত তথ্য দিয়ে রিপোর্ট ছাপা হচ্ছে। প্রয়োজনে আইসিটি অ্যাক্টে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে। অনেকে এসব অনলাইন সাংবাদিকতার আড়ালে থেকে চাঁদাবাজি ও মাদক পাচারে জড়িয়ে পড়ছে। এমন একজনকে সাতক্ষীরায় গ্রেফতারও করা হয়েছে।

সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদের সভাপতিত্বে ও প্রেসক্লাব সম্পাদক মমতাজ আহমেদ বাপ্পীর পরিচালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সুভাষ চৌধুরী, প্রথম আলোর কল্যাণ ব্যানার্জি, প্রেসক্লাবের সাবেক সহ সভাপতি আবদুল ওয়াজেদ কচি, সাবেক সাধারন সম্পাদক মিজানুর রহমান, সাবেক সাধারন সম্পাদক এম কামরুজ্জামান, সাবেক সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, দৈনিক সাতনদী সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিবসহ আরও অনেকে। বক্তারা সাতক্ষীরার আইনশৃংখলা, মাদক পাচার, জঙ্গিবাদ, চোরাচালান, সন্ত্রাসসহ বিভিন্ন সমস্যা ও পুলিশের ভূমিকা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন।

মতবিনিময় সভায় পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.ইলতুৎমিশ, সাতক্ষীরা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মির্জা সালাহউদ্দিন, সাতক্ষীরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, পুলিশ পরিদর্শক মো. মিজানুর রহমান, ট্রাফিক কর্মকর্তা কামরুল ইসলামসহ বিভিন্ন ইলেকট্রিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈশাখী/সাতক্ষীরা