দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১৯ সালের উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষার ফলাফলে ১লাখ ২৪ হাজার ৩১৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৮৯ হাজার ২৩৩ জন কৃতকার্য হয়েছে। পাশের হার ৭১ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

এবার শিক্ষা বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৪৯ জন। এর মধ্যে জিপিএ প্রাপ্ত ছাত্রী ১হাজার ৭৭৭ জন এবং ছাত্র ২ হাজার ২৭২জন।

দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তোফাজ্জুর রহমান জানান, এবারেও প্রাপ্ত ফলাফলে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে। ছাত্রীর পাশের হার ৭৫ দশমিক ৩৯ পক্ষান্তরে ছাত্রের পাশের হার ৬৮দশমিক ৩৭। তবে জিপিএ-৫ এ মেয়েদের চেয়ে ছেলেরা এগিয়ে। ইংরেজীতে ফেল করার সংখ্যা বেশী হলেও এবার গতবারের চেয়ে পরীক্ষায় পাশের হার বেড়েছে।

তিনি আরও জানান, এবার এ বোর্ডের অধীন রংপুর বিভাগের ৮টি জেলার ৬৫৮টি কলেজের পরীক্ষার্থীরা ১৯৯টি কেন্দ্রে ১লাখ ২৪ হাজার ৩১৫জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। ৬৫৮টি কলেজের মধ্যে শতভাগ পাশকৃত কলেজের সংখ্যা ২০টি। একজনও পাশ করতে পারেনি এমন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৭টি।

গত ২০১৮ সালের এইচএসসি’র পরীক্ষায় পাশের হার ছিল ৬০ দশমিক ২১ শতাংশ। এ বোর্ডে গতবারের চেয়ে রেজাল্ট ভাল হয়েছে। এবার বোর্ডে ইংরেজীতে বেশী ফেল না করলে পাশের হার আরও বেশী হতো বলে জানান দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তোফাজ্জুর রহমান।

আব্দুর রাজ্জাক/দিনাজপুর