মাহমুদ উল্লাহ্‌
বিজনেস করেসপন্ডেন্ট

বিডার সেমিনার। ছবি: বিডা

বুধবার বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা)- র আয়োজনে রাজধানীর একটি হোটেলে ‘ইন্ডাস্ট্রি ফোর পয়েন্ট জিরো ট্রান্সফরমেটিভ টেকনোলজিস ফর গ্রোথ এন্ড ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

বিডা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী মোঃ আমিনুল ইসলাম উক্ত সেমিনারে চেয়ারপারসন হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মূখ্য সমন্বয়ক (এসডিজি বিষয়ক) আবুল কালাম আজাদ প্রধান অতিথি এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ডঃ মশিউর আহমেদ ও বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা)- এর নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও সেমিনারে হারভার্ড ল স্কুল হতে আগত ডোরা সারি এবং জিওরান চেন নামক দুইজন রিসার্চ অ্যাসোসিয়েট অংশগ্রহণ করেন।

কাজী আমিনুল ইসলাম বলেন, যখন কম্পিউটার প্রথম আসে তখন মানুষের ভয় ছিল তাদের চাকরি থাকবে না। কিন্তু এমন কিছু হয়নি। তাই নতুন প্রযুক্তি নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নাই। আমরা যে সময়ে বাস করছি, তা খুবই ইন্টারেস্টিং একটা সময়। এই সময়ে মানব জাতির সর্বোচ্চ উন্নয়ন সাধন হয়েছে। এখন পৃথিবীর প্রায় অর্ধেক জনগোষ্ঠী মধ্যবিত্ত শ্রেণীর, যেখানে উন্নয়নের উচ্চাকাঙ্ক্ষা রয়েছে। এই সময়ের মানুষের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ের সচেতনতা বিদ্যমান।

কাজী আমিনুল ইসলাম আরও বলেন, প্রযুক্তি সর্বদা মানব সভ্যতাকে সৃজন করেছে। বর্তমানে আমাদের জীবন ধারন,কাজ বা পারস্পারিক ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়ার উপর প্রযুক্তির প্রভাব ব্যাপক। প্রযুক্তির সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ দুটোই আছে। বাংলাদেশের প্রধান শক্তি জনগণ। জনশক্তির মাধ্যমে এই সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে দেশের রুপান্তর ঘটাতে হবে।

আবুল কালাম আজাদ বলেন, উচ্চতর প্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রে আমাদের ভয় পাওয়া চলবে না। ভবিষ্যতের উৎপাদন, শিল্প, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে রোবটিক্স প্রযুক্তির ব্যবহারের সাথে আমাদের মানিয়ে নিতে প্রস্তুত হতে হবে। এজন্য প্রয়োজন দক্ষতা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এ লক্ষে জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (এনএসডিএ) গঠন করেছেন যেন দক্ষতার সাথে ভবিষ্যতের শিল্প,জনবল,আইন,নীতি পরিবর্তনের সাথে আমরা মানিয়ে নিতে পারি। এজন্য গত বছর ‘দক্ষতা তহবিল’ নামক একটি তহবিলও গঠন হয়েছে, যা সরকারি ও বেসরকারি উভয় খাত দ্বারা পরিচালিত হবে।

সেমিনারে পবন চৌধুরী অর্থনৈতিক অঞ্চল সম্পর্কিত সম্ভাবনা ও বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনা করেন। সেমিনারে ‘ডিসরাপটিভ টেকনোলজিস ফর সাপ্লাই চেইন ট্রান্সপারেন্সি’ এবং ‘ব্লক চেইন টেকনোলজি ফর ইকোনোমিক জোনস: ইমপেক্ট ইন লজিস্টিকস ফাইন্যান্স এন্ড পোডাকশন’ নামক দুইটি সেশনে পরিচালিত হয়। প্রথম সেশন চেয়ার করেন বিডা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান এবং দ্বিতীয়টি করেন বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান সেশন দুইটির মডারেটর ছিলেন আমেরিকার বোস্টন ইউনিভার্সিটির ইন্টারন্যাশনাল সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট ইন্সটিটিউট (আই এস ডি আই)- এর নির্বাহী পরিচালক ইকবাল ইউসুফ।

এছাড়া সেমিনারে প্রাইম এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ডঃ আব্দুল হান্নান চৌধুরী, মোহাম্মাদী গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রুবানা হক, ডিউক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ডঃ আবু আবদুল্লাহ বক্তব্য রাখেন।

আজকের পত্রিকা/এমইউ/এমএইচএস