আপনার ত্বকে যা-ই হয়, তার কারন হচ্ছে আপনার খাদ্যাভ্যাস। ছবি: সংগৃহীত

কিছু মানুষ তাদের ত্বক নিয়ে খুবই সন্তুষ্ট, আবার কিছু মানুষ তাদের ত্বক নিয়ে নানা সমস্যায় ভুগেন। আপনি যেই দলেরই হোন না কেন, ত্বকের যত্ন প্রতিদিন নিতেই হবে। শরীর সুস্থ রাখতে যেমন খাবার প্রয়োজন, ঠিক তেমনই ত্বককে সুস্থ রাখতে চাইলে কিছু যত্ন নিতে হয়। আপনার ত্বকে যাই হয়, তার কারন হচ্ছে আপনার খাদ্যাভ্যাস। অনেকেই ভাবেন, তেলজাতীয় খাবার খেলেই মুখে ব্রন উঠে। আপনার ডায়েটে সুস্থ খাবার যোগ না করলে আপনার ব্রেক আউট বা অন্যান্য ত্বকের সমস্যা হতে পারে। আপনার খাদ্য তালিকায় এই সুস্থ আইটেমগুলি অন্তর্ভুক্ত করে দেখুন, যা কেবল ওজন কমানোর ক্ষেত্রে সহায়তা করবে না, পাশাপাশি সুস্থ জীবনধারণ বজায় রাখবে।সঙ্গে এটাও নিশ্চিত করবে যে আপনার ত্বকে কোনো হাইলাইটারের দরকার নেই।

সবুজ শাকসবজি

সবুজ শাকসবজি খাওয়ার সুবিধা আমাদের কাছে অজানা নয়। ছবি: সংগৃহীত
  • সবুজ শাকসবজি খাওয়ার সুবিধা আমাদের কাছে অজানা নয়। আমাদের মা-দাদী-নানীরা অনন্তকাল থেকে এই আইটেমগুলির পুষ্টিকর মূল্য আপদেরকে বলে যাচ্ছেন। কিন্তু আপনি কখনো তাদের কথায় মনোযোগ দিয়েছেন কি?
  • যেহেতু আমাদের ত্বক ধুলাবালি এবং আজেবাজে খাবারের ফলে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, তাই আমাদের উচিত এখন থেকেই পালংশাক, ব্রকলি, লেটুস, মটরশুঁটি খাওয়া শুরু করা। এতে প্রচুর পরিমানে ফাইবার, মিনারেল আর ভিটামিন রয়েছে, আবার ক্যালোরিও কম।
  • পালংশাকে রয়েছে ভিটামিন কে, আয়রন, জিঙ্ক। যা রক্ত ​​সঞ্চালন এবং আমাদের শরীরের বিপাক উন্নতিতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
  • ব্রকলিতে ভিটামিন এবং মিনারেলের সাথে প্রচুর পরিমাণে লুইটিন রয়েছে, যা ত্বক শুকনো এবং ভাঁজ পড়া থেকে রক্ষা করে। এই সবজি ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ।

বাদাম

বাদাম আমাদের স্মৃতিশক্তি এবং হৃদরোগ উন্নত করে। ছবি: সংগৃহীত
  • বাদাম আমাদের স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে এবং হৃদরোগ থেকে নিরাপদে রাখে। কিন্তু আপনি কি জানেন, এটি ত্বককে দীর্ঘদিন উজ্জ্বল রাখতেও সহায়তা করে?
  • ওয়ালনাটে ওমেগা-৩ এবং ওমেগা-৬ আছে, যা ফ্যাটি অ্যাসিডের একটি ভাল উৎস। এটি শরীর এবং ত্বকের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এটি ত্বকের স্বাস্থ্য উন্নত করে, ফলে ত্বক ভিতর থেকে গ্লো করে।

ফ্যাটি মাছ

ফ্যাটি মাছ ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ। ছবি: সংগৃহীত

ফ্যাটি মাছ ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ যা প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের লাবন্য ফিরিয়ে আনে। এ জাতীয় মাছ ত্বককে নরম ও ময়েশ্চারাইজ রাখে। এছাড়াও ত্বকের শুষ্কতা ও ভাঁজ পড়া থেকে রক্ষা করে।

ডার্ক চকলেট

চকলেটে উপস্থিত উপাদান সমূহ ত্বকের জন্য বেশ কার্যকর। ছবি: সংগৃহীত

চকলেট যেমন খুব সুস্বাদু একটি খাবারের নাম ঠিক একইভাবে এটি আমাদের ত্বকের যত্নের জন্য ভীষণ কাজের জিনিস। যদিও এই তথ্যটি অনেকেরই অজানা, চকলেটের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও পুষ্টি উপাদান আমাদের ত্বকের যত্নে খুব কার্যকরী। চকলেটে উপস্থিত উপাদানসমূহ ত্বকের জন্য বেশ কার্যকর। এটি ত্বক সুস্থ ও উজ্জ্বল রাখে।

চকলেটের শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস আপনার ত্বককে রেডিক্যাল ড্যামেজ থেকে রক্ষা করে। এটা আপনার ত্বক সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে বাঁচায় এবং স্কিন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে এবং আপনার ত্বক মসৃণ ও আদ্র রাখে। চকলেট ত্বক পরিষ্কারক হিসেবেও খুব উপকারী। এটি আপনার ত্বকের মৃত কোষ তুলতে সাহায্য করে ও নতুন কোষগুলোর রক্ষা করে সাথে ত্বকের অবস্থা স্বাভাবিক রাখে।

সাইট্রাস ফল

সাইট্রাস ফল প্রাকৃতিক ব্লিচের কাজ করে। ছবি: সংগৃহীত

সাইট্রাস ফল, কিউই এবং স্ট্রবেরি ভিটামিন সি’র চমৎকার উৎস। এটা সবারই জানা যে, ভিটামিন সি ত্বকের বিশুদ্ধতা রক্ষায় এবং সানবার্ন কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। সাইট্রাস ফল দিয়ে রূপচর্চার উপকারিতা হলো এটি ত্বককে সজীব করে, পাশাপাশি উজ্জ্বল ও নরম রাখে। আবার এটি প্রাকৃতিক ব্লিচের কাজও করে। ত্বকে এটি ফেয়ার পলিশের কাজ করে। ত্বকের কালো ভাব দূর করে দেয়, অথচ এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

আজকের পত্রিকা/সিফাত