তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের বার্ষিক অধিবেশনে কাশ্মীর নিয়ে কথা বলায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রস্তাবিত তুরস্ক সফরটি স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় সরকার। খবর ভারতের গণমাধ্যম দ্য হিন্দুর।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান কাশ্মির নিয়ে কথা বলেছিলেন।

একাধিক সূত্রের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমটি জানায়, গত জুনে জাপানের ওসাকায় তুরস্কের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদির সাক্ষাৎকালে এই সফরের বিষয়ে আলোচনা হয়। এর আগের পরিকল্পনা অনুযায়ী, চলতি বছরের শেষে তুরস্ক সফর করার কথা ছিল ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর।

এই বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, প্রধানমন্ত্রীর এমন কোনও সফর আলোচনাধীন ছিল না। অন্যদিকে ভারতে তুরস্কের রাষ্ট্রদূত শাকির ওজকান তরুনলার গণমাধ্যমটিকে জানান, তার সরকার নরেন্দ্র মোদির সফরের বিষয়ে আশাবাদী।

তুরস্কের রাষ্ট্রদূত বলেন, এটি শুধু আশা নয়, সম্প্রতি এই সফর নিয়ে আলোচনাও হয়েছে। এখন আমরা আগামী দুই মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শিডিউল অনুসারে বিকল্প তারিখ প্রস্তাবের অপেক্ষায় আছি। তবে নরেন্দ্র মোদির তুরস্ক সফরের সিদ্ধান্তটি ভারতের সরকারের হাতে।

গণমাধ্যমটিকে সূত্রগুলো নিশ্চিত করেছে, তুরস্কের আনাদোলু শিপইয়ার্ডকে দিতে এই বছরের শুরুতে অনুমোদিত ২.৩ বিলিয়ন ডলারের টেন্ডারটি সম্ভবত বাতিল হবে। হিন্দুস্তান শিপইয়ার্ড লিমিটেডের জন্য পাঁচটি ৪৫ হাজার টনের ফ্লিট সাপোর্ট শিপ নির্মাণ বাবদ টেন্ডারটি অনুমোদিত হয়।

তুরস্ক কাশ্মীরের পক্ষে অবস্থান নেয়ায় এবং ভারত এই সপ্তাহে সিরিয়ার আঙ্কারার সামরিক অভিযানের কঠোর সমালোচনা করায় আনাদোলু শিপইয়ার্ডকে দিয়ে ভারতের জন্য জাহাজ বানানোর সিদ্ধান্তটি বাতিল হতে পারে। এছাড়া আনাদোলু এর আগে পাকিস্তানের নৌবাহিনীর জন্য কাজ করেছে।

একাধিক কূটনৈতিক সূত্র জানায়, তুরস্কের প্রতিষ্ঠানকে টেন্ডারটি দেয়ার ক্ষেত্রে দেশটির সাম্প্রতিক বিবৃতিগুলো এবং ফিন্যান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সে (এফএটিএফ) সন্ত্রাসে অর্থায়নের বিষয়ে পাকিস্তানকে সমর্থনের বিষয়ও বিবেচনা করছে ভারত।