পেঁয়াজ

চালান আসতে শুরু করেছে মিশর, মিয়ানমান ও চীনের পেঁয়াজের।

আর এতে করে চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম।

দেশের প্রধান এ পাইকারি বাজারটিতে ১৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ।

তবে দাম কমার পাশাপাশি আড়তে পেঁয়াজ থাকলেও ক্রেতা কম বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন খাতুনগঞ্জ পেঁয়াজ আড়তদার সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ ইদ্রিস।

তিনি জানান, গতরাতে মিশর, মিয়ানমার ও চীনের প্রায় ৪০ ট্রাক পেয়াজ এসেছে খাতুনগঞ্জে। সন্ধ্যায় পেঁয়াজের আরও কয়েকটি চালান আসবে। তখন দাম আরও কমবে।

এদিকে, পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম কমলেও খুচরা বাজার বেশি দামে বিক্রি করা হচ্ছে।

লালমনিরহাটে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৫০ থেকে ১৬০ টাকায়। ফরিদপুরে নতুন পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১১০ টাকা এবং পুরাতন পেঁয়াজ ১৪০ টাকায়। পাবনায় পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ৩০-৪০ টাকা কমে ১৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু হয়েছে।

অন্যদিকে, গতকালের তুলনায় কিছুটা কম দামে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে রাজধানীর কাঁচাবাজারে। কেজিতে কমেছে ৫ থেকে ১০ টাকা। তবে পেঁয়াজের দাম নিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতাদের কাছ থেকে পাওয়া যাচ্ছে ভিন্ন ভিন্ন তথ্য।