তিতাস গ্যাসের লোগো। ছবি : সংগৃহীত

নিয়োগের ক্ষেত্রে আদালতের আদেশ অমান্য করায় তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি), মহাব্যবস্থাপক (জিএম) এবং উপ-মহাব্যবস্থাপককে (ডিজিএম) তলব করেছেন হাইকোর্ট।

আসন্ন ২ জুলাই মঙ্গলবার তাদের সশরীরে আদালতে হাজির হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

২৫ জুন মঙ্গলবার বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই সংক্রান্ত একটি সম্পূরক আবেদনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

২০১৭ সালের ১৮ ডিসেম্বর তিতাসে ৭৯ জন কর্মকর্তা নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। এ অনুযায়ী মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কোটায় নিয়োগ পরীক্ষায় অনেকে অংশ নেন। তবে চূড়ান্ত ফলাফলে তাদের বাদ দেওয়া হয়। পরে কোটা অনুসরণ করে নিয়োগ দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে কয়েকজন ২০১৮ সালের ২০ নভেম্বর একটি রিট দায়ের করেন।

ওই রিটের প্রাথমিক শুনানিতে রুল নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষকে ৩০ শতাংশ কোটা সংরক্ষণের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। পরে এর মধ্যে ৬৩ জনকে নিয়োগ দেয় তিতাস কর্তৃপক্ষ। তবে বাকিদের উপেক্ষা করে চলতি বছরের ২ এপ্রিল ১৭ জনকে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলে রিট আবেদনকারীরা হাইকোর্টে সম্পূরক আবেদন করেন। এরই ধারাবাহিকতায় হাইকোর্ট তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের ৩ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে তলব করলেন।

আজকের পত্রিকা/কেএফ