ছবি: প্রতীকী। সংগৃহীত

তানজানিয়াতে পুরুষ সাংসদদের খৎনার পরামর্শ দিয়েছেন তাদেরই একজন নারী সহকর্মী জ্যাকলিন এঙগনিয়ানি।

সংসদ অধিবেশনে এক বিতর্কের সময় জ্যাকলিন এঙগনিয়ানি বলেছেন, যেসব পুরুষ সংসদ সদস্যের খৎনা করানো হয়নি তাদের অবিলম্বে তা করিয়ে নেয়া উচিৎ। জ্যাকলিনের এই পরামর্শে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন সংসদ সদস্যরা। বিভক্ত কিছু সংসদ সদস্য এই পরামর্শকে ব্যক্তি স্বাধীনতাবিরোধী ও অমার্জিত পরামর্শ হিসেবে গণ্য করেছেন।

শুধু তানজানিয়াতে নয়, আফ্রিকার অন্যান্য দেশেও এই খৎনার ব্যাপারে উৎসাহিত করা হচ্ছে। খৎনার সাথে এইচআইভির জীবাণু সংক্রমণের সম্পর্ক রয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে খৎনার মাধ্যমে এইচআইভি জীবাণু ছড়ানোর ঝুঁকি ৬০ শতাংশ কমিয়ে আনা সম্ভব এমন জোরালো প্রমাণ রয়েছে।

গবেষকদের মতে, খৎনার সময় পুরুষদের যৌনাঙ্গের ত্বকের বাড়তি যে অংশটি ফেলে দেয়া হয়, তা থেকে এইচআইভি জীবাণু বেশি প্রবেশ করার সুযোগ পায়। খৎনা এইচআইভি সংক্রমণ পুরোপুরি বন্ধ না হলেও কমাতে সাহায্য করে বলে মনে করা হয়।

আফ্রিকাতে এইচআইভি জীবাণু সংক্রমণ ও এইডস একটি মারাত্মক সমস্যা এবং ভয়াবহ জনস্বাস্থ্য ঝুঁকি হিসেবে বিবেচিত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব অনুযায়ী বিশ্বের মোট এইচআইভি আক্রান্ত ব্যক্তির প্রায় ৭০ শতাংশের বসবাস আফ্রিকাতে। তানজানিয়াতে প্রাপ্ত বয়স্ক জনগোষ্ঠীর ৫ শতাংশ এইচআইভিতে আক্রান্ত।