ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন কাজী সানাউল হক। ৯ ফেব্রুয়ারি রবিবার সকালে তিনি এই প্রতিষ্ঠানে যোগদান করেন।

এর আগে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) সাবেক এ এমডিকে ডিএসইর এমডি করা নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির পর্ষদে বিরোধ দেখা দেয়। পর্ষদের একটি অংশ সানাউলের বিরোধিতা করে। তবে কাজী সানাউল হককে এমডি করতে শক্ত অবস্থান নেন ডিএসইর চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবুল হাসেম এবং শেয়ারহোল্ডার পরিচালক রকিবুল রহমান।

এক অংশের কড়া সমালোচনার মুখে এক পর্ষদ সভায় ডিএসইর চেয়ারম্যান বলেন, স্বচ্ছ প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই ডিএসইর এমডি নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। যদি কারও মনে হয় এমডি নিয়োগে স্বচ্ছ প্রক্রিয়া অনুসরণ হয়নি তাহলে তিনি মামলা করতে পারেন।

এর আগে গত ৭ জানুয়ারি ডিএসইর এমডি নিয়োগ সংক্রান্ত কমিটিতে ‘নমিনেশন অ্যান্ড রিমিউনারেশন কমিটি (এনআরসি)’ কাজী সানাউল হককে এমডি হিসেবে প্রাথমিকভাবে বেছে নেওয়া হয়। এরপর ৯ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ডিএসইর পর্ষদ সভায় তাকে এমডি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

পর্ষদ সভায় ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের ৬ জন কাজী সানাউল হককে এমডি হিসাবে নিয়োগ দেওয়ার বিষয়ে সম্মতি জানান। তবে তিনজন শেয়ারহোল্ডার পরিচালকসহ ৪ জন তার বিষয়ে আপত্তি জানান। আপত্তি জানানো শেয়ারহোল্ডারদের পক্ষে অভিযোগ করা হয়, এমডি নিয়োগে স্বচ্ছ প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হয়নি। তারা অভিযোগ করেন, ডিএসইর এমডি নিয়োগের বিষয়ে পর্ষদ সদস্যদের নোটিশ করতে হয়। কিন্তু এবার কোনো নোটিশ করা হয়নি। আবার এমডিকে পর্ষদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করানোর রীতি থাকলেও তা করা হয়নি। এছাড়া আইসিবিতে থাকা অবস্থায় কাজী সানাউল হকের বিরুদ্ধে ঋণ জালিয়াতির অভিযোগ উঠে এবং দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) থেকে তাকে তলবও করা হয়। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সাংবাদও প্রকাশ হয়েছে। এমন বিতর্কিত ব্যক্তিকে ডিএসইর এমডি করা উচিত হবে না।

তবে এরপরও পর্ষদ সভায় সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে ওইদিনই ডিএসই থেকে কাজী সানাউল হককে এমডি হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার জন্য বিএসইসিতে আবেদন করা হয়। এরপর ১২ জানুয়ারি ডিএসই থেকে সানাউল হকের বিষয়ে পর্ষদ সদস্যদের আপত্তিগুলো চিঠি দিয়ে বিএসইসিকে জানানো হয়।

চিঠিতে, আপত্তিগুলো বিবেচনায় নিয়ে যোগ্যতার ভিত্তিতে এমডি নিয়োগের প্রস্তাবটি অনুমোদনে বিএসইসিকে অনুরোধ করা হয়েছে। এরপর ২২ জানুয়ারি কমিশন সভা করে কাজী সানাউল হককে ডিএসইর এমডি হিসেবে অনুমোদন দিয়েছে বিএসইসি।

আজকের পত্রিকা/সিফাত