ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে চালু হচ্ছে অ্যাপভিত্তিক সাইকেল সেবা ‘জোবাইক’। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের জন্য ‘ডিইউ চক্কর’ নামে এই সেবাটি ইতোমধ্যেই পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদনে এবং ডাকসুর সহযোগিতায় প্রাথমিকভাবে ১০০টি সাইকেল নিয়ে আগামী ১৬ অক্টোবর থেকে ক্যাম্পাসে এটি আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করবে।

গত ৭ অক্টোবর থেকে ক্যাম্পাসে পরীক্ষামূলকভাবে চালু হওয়া এই সেবা ইতোমধ্যেই শিক্ষার্থীদের মধ্যে ইতিবাচক ধারণা দিতে সক্ষম হয়েছে বলে দাবি করছেন ডাকসুর পরিবহন সম্পাদক শামস ঈ নোমান।

তিনি বলেন, “ক্যাম্পাসে যানজট নিরসনের ক্ষেত্রে জোবাইক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে এবং জোবাইক ব্যবহারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের পরিবহন ব্যয়ও কমবে।”

শিক্ষার্থীরা তাদের বৈধ আইডি কার্ড দেখিয়ে নিবন্ধিত হওয়ার মাধ্যমে ক্যাম্পাসের ভেতরে এই সেবা নিতে পারবেন বলে জানান তিনি। বিশ্বিবিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও নিবন্ধনের করে পারবেন এই সেবা নিতে।

জোবাইকের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও মেহেদী রেজা জানিয়েছেন, পরীক্ষামূলকভাবে চালু এই সেবাটি গ্রহণ করতে ইতোমধ্যেই অনেক শিক্ষার্থী নিবন্ধন করেছেন। তবে কিছু শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসের বাইরে বাই-সাইকেল নিয়ে যাচ্ছেন বলে তাদের অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে।

“কিছু শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্যাম্পাসের বাইরে বাই-সাইকেলটি রেখে আসা এটা একটা ভুল ধারণা তৈরি হয়েছে। হয়ত আমরা তাদেরকে ঠিকভাবে বোঝাতে সক্ষম হইনি, এজন্য হতে পারে।”

মেহেদী বলেন, “শিক্ষার্থীদের ইতিবাচক সাড়া পেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আমরা যত দ্রুত সম্ভব সাইকেলের সংখ্যা বাড়িয়ে দেব। নভেম্বরের মধ্যেই আরও ৫০টি এবং ডিসেম্বরের মধ্যে মোট ৩০০টি সাইকেল দেওয়ার প্ল্যান আমাদের আছে।”

যেভাবে চলবে জোবাইক

মেহেদী রেজা জানিয়েছেন, জোবাইকের স্মার্ট সাইকেলের সঙ্গে থাকবে অত্যাধুনিক লক, সোলার প্যানেল, জিপিএস ইত্যাদি। এই সাইকেলের লক খোলার জন্য দরকার হবে একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ। অ্যাপের মাধ্যমে সাইকেলের সঙ্গে থাকা কিউআর কোড স্ক্যান করে সাইকেলটি ব্যবহার করা যাবে।

সেবাটি গ্রহণ করার জন্য শিক্ষার্থীদের বৈধ পরিচয়পত্র (আইডি কার্ড) দেখিয়ে ক্যাম্পাসে জোবাইকের নির্দিষ্ট বুথ থেকে নিবন্ধন করতে হবে। নিবন্ধনের সময় শিক্ষার্থীদের অ্যাকাউন্টে সর্বনিম্ন ১০০ টাকা রিফিল করতে হবে।

জোবাইকের এই প্রতিষ্ঠাতা বলেন, “অ্যাপের মাধ্যমে স্ক্যান করে সাইকেলের লক খোলার সঙ্গে শুরু হবে সময় গণনা। গন্তব্যে পৌঁছে ব্যবহারকারী যখন সাইকেলটি স্ট্যান্ড করে পুনরায় লক করবেন, তখন শেষ হবে তার রাইড।”

সাইকেল ব্যবহারের জন্য প্রথম ৫ মিনিটে গুনতে হবে ২ টাকা ৫০ পয়সা এবং পরবর্তী মিনিট থেকে প্রতি মিনিটে ৪০ পয়সা।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের প্রতিটি আবাসিক হল, কার্জন হল, কলাভবন, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ, সামাজিক বিজ্ঞান ভবন, টিএসসি, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে জোবাইকের স্ট্যান্ড রাখা হয়েছে।