প্রতিকী ছবি

রাজধানী ঢাকার শ্যামপুরে গ্যাস লাইনের বিস্ফোরণে আবির নামের সাত বছর বয়সী এক শিশু নিহত হয়েছে। একই ঘটনায় গুরুতর জখম হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীর রয়েছেন আরো ৩ জন।

১১ জুন মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে বিস্ফোরণের এই দূর্ঘটনা ঘটে।
আহতদের মধ্যে রয়েছেন নিহত শিশু আবিরের মা সাথী আক্তার ও বোন আদিবা (১১) এবং ভ্যান চালক রুবেল (৩০)।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া আজকের পত্রিকাকে বলেন, বিস্ফোরণের পরপরই গুরুতর আহত অবস্থায় আবিরসহ ৪ জনকে হাসপাতালে আনা হয়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক আবিরকে রাত পৌনে ৮ টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন। অন্যান্য চিকিৎসা চলছে।

এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের ডিউটি অফিসার মো. রাসেল শিকদার বলেন, শ্যামপুর থানাধীন জুরাইনের মুন্সীবাড়ি পাইপরাস্তা নামক স্থানে পয়োনালার ভেতর দিয়ে যাওয়া গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে তিন পথচারী গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

আবিরের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আবিররা থাকতো পুরান ঢাকার ধুপখোলায়। সাথী আক্তার তার দুই সন্তানকে নিয়ে শ্যামপুরে তার বাবার বাসায় বেড়াতে যান। সাথীরা যখন জুরাইনের মুন্সিবাড়ি মোড়ে আসেন, ঠিক তখনই হঠাৎ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে শ্যামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, বিস্ফোরণের সংবাদ পাওয়ার পরপরই ঘটনাস্থলে পুলিশ সদস্যরা গিয়েছে। এই গ্যাস বিস্ফোরনের ঘটনায় কারো গাফেলতি থাকলে সেটি তদন্ত করে দেখা হবে।

আজকের পত্রিকা/কেএফ