কাজী ফয়সাল
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক

বাংলাদেশে এটিএম বুথ থেকে জালিয়াতির কৌশলে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনার সাথে জড়িত ৬ ইউক্রেন নাগরিকের বিরুদ্ধে রাজধানীর বাড্ডা থানায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। ছবি : সংগৃহীত

এক অস্থিতিশীলতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশের ব্যাংকিং খাত। গ্রাহকের আমানত রক্ষা করতে পারছে না ব্যাংকগুলো। এর মধ্যে খবর এলো ডাচ বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে টাকা চুরির ঘটনা। এর সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। ব্যাংকের নিরাপত্তা ব্যবস্থা কতোটা নাজুক তাও প্রমাণ হলো এ ঘটনায়।

বাংলাদেশে এটিএম বুথ থেকে জালিয়াতির কৌশলে অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনার সাথে জড়িত ৬ ইউক্রেন নাগরিকের বিরুদ্ধে রাজধানীর বাড্ডা থানায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

১০ জুন সোমবার রাত সাড়ে ১০ টার দিকে এই মামলা (মামলা নং ১০) দায়ের করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন সিআইডির জনসংযোগ কর্মকর্তা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) শারমিন জাহান।

তিনি বলেন, এটিএম বুথ জালিয়াতির ঘটনায় জড়িত দেনিস ভেতোমস্কি, ভালোদিমির ত্রিশেনসকি, নাজারি ভজনোক, সের্গেই উকরাইনেতসআলেগ শেভচুক, আলেগ শেভচুক ও ভাটালি কিলিমচুক এর বিরুদ্ধে বাড্ডা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পাশপাশি ডিবি, সিআইডি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বুয়েটের আইটি বিশেষজ্ঞদের সহায়তায় তদন্তের কাজও চলছে।

মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম বলেন, এটিএম বুথ জালিয়াতির মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে থানায় সিআইডির পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। থানায় মামলা হলেও এটি শুরু থেকে ডিবি এবং সিআইডি তদন্ত করছে। এখনও তদন্তের দায়িত্বভার তাদের কাছেই আছে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ১ জুন রাত পৌনে ৮টার দিকে খিলগাঁওয়ের তালতলা মার্কেটের বিপরীতের ডাচবাংলা বুথে দুই বিদেশি নাগরিক মুখোশ ও টুপি পরে প্রবেশ করে। এ সময় সেখানকার সিকিউরিটি গার্ডের কাছে তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক বলে মনে হলে দু’জনকে ধরার চেষ্টা করলে তারা পালাতে চেষ্টা করে। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় দেনিস ভেতোমস্কি নামের এক বিদেশিকে আটক করে খিলগাঁও থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয় জনগন। পরে থানা পুলিশ, ডিবি ও সিআইডির একটি যৌথ দল আটক দেনিসের দেয়া তথ্যানুসারে পান্থপথের ওলিও ড্রিম হোটেলে অভিযান চালায়।

সেখান থেকে গ্রেফতার করা হয় আরও ৫ জন ইউক্রেনীয়কে। তাদের কাছ থেকে বুথ জালিয়াতিতে ব্যবহৃত ম্যাগনেটিক কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, মোবাইল, ট্যাবসহ অন্যান্য আলামত জব্দ করা হয়।

আজকের পত্রিকা/কেএফ/এমএইচএস