ঠাকুরগাঁওয়ের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে থাকবে

আর মাত্র কয়েকদিন পরেই ঈদ উল আযহা। এই ঈদে ঠাকুরগাঁও জেলায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পুলিশ-প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে থাকবে। বিগত ঈদগুলোতেও ঠাকুরগাঁওয়ে সু-শৃঙ্খলভাবে ঈদ উদযাপনের জন্যে ব্যবস্থা নিয়েছিল প্রশাসন। তার ধারাবাহিকতা এ ঈদেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের হলরুমে আয়োজিত ‘জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায়’ পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের সর্বোচ্চ কর্মকর্তা এ ঘোষণা দেন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। এ কথাটি আমাদের প্রত্যেকের মনে রাখতে হবে। সমাজের কিছু দুষ্টু প্রকৃতির মানুষ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর চেষ্টা করে; এর ফলে নিরীহ মানুষরা ক্ষতির সম্মুখিন হয়। যারা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাবে তাদের বিরুদ্ধে কঠো ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনকে আহবান জানান তিনি।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান মনির বলেন, ঈদ উল আযহা উপলক্ষ্যে নিরাপত্তা নিয়ে একাধিক বৈঠকে বিভিন্ন পরিকল্পনা গৃহিত হয়েছে। আর সেই পরিকল্পনা মোতাবেক কাজ করা হবে। জেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্পূর্ণভাবে নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, ঠাকুরগাঁও একটি শান্তিপ্রিয় জেলা। এখানে মানুষের মাঝে কোন ভেদাভেদ নেই। মানুষরা তাদের ধর্ম যেন ঠিকমত পালন করতে পারে সেজন্য প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ নেয়া হবে।

এ সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ঠাকুরগাঁও-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব দবিরুল ইসলাম, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সংসদ সদস্য জাহিদুর রহমান জাহিদ, সংরক্ষিত মহিলা-৩০২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাস্সুম জুঁই, সিভিল সার্জন ডাঃ এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম, জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শীলাব্রত কর্মকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন প্রমুখ।

এ সভায় জেলার ৫টি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা চেয়ারম্যান, ৬টি থানার ওসি সহ সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা অংশ নিয়ে তাদের মতামত প্রদান করেন। এছাড়াও এ সভা থেকে জেলার বিভিন্ন সমস্যাগুলো দ্রুত সমাধানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

রহিম উল আলম খোকন/ঠাকুরগাঁও