টাঙ্গাইলে ছালেহা হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন

টাঙ্গাইলের চাঞ্চল্যকর ছালেহা হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মুক্তিযোদ্ধা, পরিবার ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন ও সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

রোববার(১৯ জানুয়ারি) দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন ও প্রেসক্লাবের সামনে ওই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, নিহত ছালেহার বাবা মহান মুক্তিযুদ্ধে ১১নং সেক্টরের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুস ছামাদ।

তিনি অভিযোগ করেন, ছালেহা হত্যা মামলাটি আদালতে রায়ের অপেক্ষায় রয়েছে। যৌতুকের জন্য গৃহবধূ হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত ছালেহার স্বামী আশরাফুল আলম ছাত্তারসহ অন্যরা জামিনে মুক্তি পেয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

তারা মামলাটি আপোষরফা করার জন্য মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস ছামাদ ও তার পরিবারকে চাপ ও হুমকি দিচ্ছে। ফলে নিহত ছালেহার পরিবার নিরাপত্তহীনতায় ভুগছে।

সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন কর্মসূচিতে অন্যদের মধ্যে টাঙ্গাইল জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার খন্দকার আনোয়ার হোসেন, সাবেক সহকারী কমান্ডার মো. সোলায়মান মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক শামছুল আলম চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মজিদ, পৌর কাউন্সিলর কামরুল হাসান মামুন, নিহতের ছোট বোন সাবিহা আক্তার, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সভাপতি মো. মাহমুদুর রহমান খান (বিপ্লব), সাধারণ সম্পাদক মো. রাশেদ খান মেনন রাসেল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রকাশ, যৌতুকের দাবি পুরণ না হওয়ায় ২০১২ সালের ১৮ আগস্ট গৃহবধূ ছালেহাকে অমানষিক নির্যাতন ও শ্বাসরোধে হত্যার পর সিলিংফ্যানের সাথে অর্ধঝুলন্ত অবস্থায় টাঙিয়ে রাখা হয়।

এ ঘটনায় ছালেহার স্বামী, শাশুড়ি, প্রতিবেশি ইয়াকুব সহ অজ্ঞাতনামা আরো ২-৩জনকে অভিযুক্ত করে নিহতের বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস ছামাদ দেলদুয়ার থানায় মামলা দায়ের করেন।

পুলিশের সুরতহাল রিপোর্টে ছালেহার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। ময়নাতদন্ত রিপোর্টে ছালেহাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

-জোবায়ের মল্লিক বুলবুল