২০১৯-২০২০ অর্থবছরে খরিপ ২০২০- ২০২১মৌসুমে পারিবারিক কৃষির আওতায় সবজি পুষ্টি বাগান স্থাপনের লক্ষ্যে ঝালকাঠিতে সদর উপজেলার দশটি ইউনিয়নে ৩২০ জন কৃষক কৃষানীর মাঝে উপকরণ ও অর্থ বিতরণ করা হয়েছে।

এ উপলক্ষ্যে সোমবার (২৯ জুন)ঝালকাঠি সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়নে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে অর্থ বিতরণ অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান খান আরিফুর রহমান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রোজী আকতারের সভাপতিত্বে আলোচনা করেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মঈন তালুকদার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ইসরাত জাহান সোনালী ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রিফাত সিকদার।

পারিবারিক কৃষির আওতায় সবজি পুষ্টি বাগান স্থাপনের জন্য প্রতি কৃষক পরিবারের কাছে ১০ ধরণের সবজি বীজ তুলে দেয়া হয়েছে। কৃষক পরিবার তাদের বাড়ির আঙ্গীনায় ৫ বর্গ মিটার যায়গায় ৫টি প্লটকরে লতা জাতীয় ও লালশাক, পুঁইশাক, কলমি শাক ইত্যাদি চাষাবাদ করবেন

এই কাজের জন্য কৃষি বিভাগ কৃষক পরিবারকে বেড়া তৈরীর জন্য ১ হাজার টাকা, পরিচর্যার জন্য ৫শ টাকা এবং জৈব-অজৈব সার ক্রয়ের জন্য ৪৩৫ টাকাসহ ১৯শত ৫০টাকা প্রদান করবেন। এই অর্থ কৃষকের মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে প্রেরণ করা হবে। পারিবারিক সবজি বাগান কালিকাপুর মডেল অনুসরণ করে এই ধরণের চাষাবাদ সম্প্রসারণের জন্য এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী করোনা পরিস্থিতি জনিত কারণে আবাদ বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষি মন্ত্রণালয় এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

উপজেলা চেয়ারম্যান খান আরিফুর রহমান কৃষকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, বর্তমান সরকার কৃষক বান্ধব সরকার তাই কৃষকের কথা ভেবে সার, সবজিসহ সকল ধরনের সহযোগিতা করছেন আওয়ামী লীগ সরকার প্রধান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করেনা কালিন ও আম্পান দুযোর্গে জন্য কৃষকের কথা ভেবে কৃষি প্রনোধনা দিচ্ছেন।

প্রধানমন্ত্রী যে উদ্দেশ্য নিয়ে কৃষকদের উপকরণ ও অর্থ দিয়েছেন তা সঠিক ভাবে কাজে লাগিয়ে সে উদ্দেশ্য সফল করবেন। আপনারা সাবলম্বী হবেন দেশ কৃষিতে উন্নয়ন গঠবে।

  • 46
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    46
    Shares