লিচুতে রয়েছে অলিগোনল নামের একটি উপাদান যা শরীরে ভাইরাসকে বাড়তে দেয় না। ছবি : সংগৃহীত

গ্রীষ্মকালীন ফল লিচুর স্বাস্থ্যগুণের পাশাপাশি রূপচর্চার ক্ষেত্রেও অসাধারণ কাজ করে থাকে। চলুন জেনে নেওয়া যাক, রোগ প্রতিরোধে আর রূপচর্চার ক্ষেত্রে লিচুর আশ্চর্য কয়েকটি ব্যবহার সম্পর্কে।

১) লিচুতে রয়েছে ফাইটোকেমিক্যালস যা অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট হিসেবে কাজ করে। এই ফাইটোকেমিক্যালস চোখে ছানি পড়া বন্ধ করতে সাহায্য করে।

২) লিচুতে রয়েছে অলিগোনল নামের একটি উপাদান যা শরীরে ভাইরাসকে বাড়তে দেয় না। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। লিচুতে ফ্যাট আর ক্যালোরির পরিমাণ খুবই কম থাকে। তাই লিচু খেলে ওজন বাড়ার কোনো ভয় নেই।

৩) ত্বকের কালচে দাগ-ছোপ দূর করতে লিচুর রস অত্যন্ত কার্যকরী। ৫-৬টা লিচু চটকে তা মুখে মেখে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত ২ দিন এমন করতে পারলে মুখের ত্বকের কালচে দাগ-ছোপ সহজেই দূর হয়ে যাবে।

৪) রোদে পোড়া ত্বকের টান দূর করতে লিচুর রস ব্যবহার করতে পারেন। ৪-৫টা লিচু চটকে তার সঙ্গে ভিটামিন-ই ক্যাপসুল মিশিয়ে সেটি মুখে ও হাতে পায়ের ট্যান পড়া ত্বকে ভাল করে মেখে নিন। ৩০ মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২-৩ দিন লিচু ব্যবহার করলেই পার্থক্য দেখতে পারবেন।

৫) ত্বকের বলিরেখা দূর করতে লিচুর রসের জুড়ি নেই। লিচুর রস মুখে মেখে ১০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। সাথে সাথেই ফল দেখতে পারবেন।

আজকের পত্রিকা/কেএইচআর/