বলা যায় এখন লাঠিখেলা হারিয়েই গেছে। ছবি : সংগৃহীত

বলা যায় এখন লাঠিখেলা হারিয়েই গেছে। গ্রামবাংলার প্রাচীন এই খেলাটি এখন চাইলেই দেখা যায় না। তবে এই বৈশাখে ঐতিহ্যবাহী এই খেলাটিকে মানুষের সামনে নিয়ে এসেছে জেএইচএম এডুকেশন ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট। তাদের উদ্যোগে ২ বৈশাখ ১৫ এপ্রিল পূর্বাচলের ৪নং সেক্টরের জনতা স্কুল মাঠে আয়োজন করা হয়েছিল লাঠিখেলার।

বিলুপ্তপ্রায় এই লাঠিখেলা দেখতে দূর দূরান্ত থেকে সাধারণ মানুষরা এসে ভিড় করেন মাঠের চারপাশে।

ব্যতিক্রমী এই আয়োজনের উদ্বােধন করেন ডাকসুর জিএস ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার মো. হারুন অর রশিদ।

জে এইচ এম গ্ৰুপের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন কোম্পানির চেয়ারম্যান মো. মেহেদী হাসান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম, ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মেহেদী হাসান বিপ্লব, ডিরেক্টর মো. হুমায়ুন কবির।

মঞ্চে অতিথিরা। ছবি : সংগৃহীত

আলহাজ সালাউদ্দিন ভূইয়া ও জেএইচএম এডুকেশন ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্ট নামে দুটি লাঠিয়াল দল এই খেলায় অংশ নিয়েছিল।

এ আয়োজন নিয়ে জে এইচ এম গ্ৰুপের চেয়ারম্যান মো. মেহেদী হাসান বলেন, ‘সাধারণ মানুষকে বৈশাখের আনন্দ দেওয়ার পাশাপাশি আমাদের গ্রামীণ ঐতিহ্যকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরাই ছিল এই আয়োজনের মূল লক্ষ্য। প্রাণবন্ত সুন্দর একটি অনুষ্ঠান হয়েছে। আমাদের ইচ্ছে আছে নিয়মিত এ ধরনের আয়োজন করার।’

আজকের পত্রিকা/জেবি